এবার ভারতীয় বিএসএফকে কঠিন শিক্ষা দিলো বিজিবি

ইমান২৪.কম: ভারতীয় বিএসএফকে কঠিন শিক্ষা দিয়েছে বাংলাদেশ বর্ডার গার্ড (বিজিবি)। আমরা প্রায় দেখি ভারতীয় বিএসএফ সিমান্তে বাংলাদেশীকে পেলেই সাথে সাথে গুলি করে, সেখানে বাংলাদেশ বর্ডার গার্ড (বিজিবি) শনিবার (২৯ মে) সন্ধ্যায় পঞ্চগড় সদর উপজেলার চাকলাহাট ইউনিয়নের শিংরোড সীমান্ত এলাকায় এক ভারতীয় নাগরিককে পায়।

বিজিবি তাকে স্বসম্মানে ধরে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করে। পরে জানা যায়, শনিবার সন্ধ্যায় নীলফামারী ৫৬ বিজিবির অধীনস্থ শিংরোড বিওপির নায়েক সুবেদার সরদার আজিজুর রহমান তাকে সীমান্ত এলাকার পাকা রাস্তার উপর সন্দেহভাজন ভাবে চলাচল করতে দেখে।

পরে কাছে গিয়ে পরিচয় জানতে চাইলে তার বাড়ি ভারতে বলে জানায়। পঞ্চগড় সদর থানার ওসি আবু আক্কাছ আহমদ বলেন, ওই ভারতীয় নাগরিক কাজের সন্ধানে সীমানা পেরিয়ে বাংলাদেশে আসেন।

আরো পড়ুন>> পঞ্চগড় সদর উপজেলার সীমান্ত এলাকা থেকে শম্ভু ভূঁইয়া (৪০) নামে এক ভারতীয় নাগরিককে আটক করেছে বিজিবি। শনিবার (২৯ মে) বিকেলে সদর উপজেলার চাকলাহাট ইউনিয়নের কহুরুহাট এলাকা থেকে ওই ভারতীয় নাগরিককে আটক করা হয়।

আটক শম্ভুর বাড়ি ভারতের হাজারিবাগ জেলার চাতলা থানার গৌরবপুর গ্রামে। তিনি ওই গ্রামের চন্দন ভূঁইয়ার ছেলে। রাতে তাকে পঞ্চগড় সদর থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছে বিজিবি।

পুলিশ ও বিজিবি সূত্রে জানা যায়, সীমান্ত পার হয়ে বিকেলে শম্ভু কহুরুহাট বাজার হয়ে পঞ্চগড়ের দিকে যাচ্ছিলেন। এ সময় স্থানীয়দের সন্দেহ হওয়ায় তাকে তারা জিজ্ঞাসাবাদ করে। হিন্দিতে কথা বলায় স্থানীয়রা তাকে ভারতীয় নাগরিক হিসেবে নিশ্চিত করে। পরে শিংরোড বিজিবি ক্যাম্পের সদস্যদের বিষয়টি জানানো হলে তারা এসে শম্ভুকে আটক করে। তার বিরুদ্ধে পঞ্চগড় সদর থানায় অবৈধ অনুপ্রবেশের মামলা করেছে বিজিবি সদস্য আজিজুর রহমান।

পঞ্চগড় সদর থানার ওসি আবু আক্কাছ আহমদ বলেন, ওই ভারতীয় নাগরিক কাজের সন্ধানে সীমানা পেরিয়ে বাংলাদেশে আসেন ওই ভারতীয় নাগরিক। তার বিরুদ্ধে মামলা করেছে বিজিবি। রবিবার তাকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হবে।

ফেসবুকে লাইক দিন