ব্লগারদের বিরুদ্ধে কথা বলায় আ’লীগ নেতার গালিগালাজ, চলছে ছাত্রদের বিক্ষোভ

ইমান২৪.কম: ময়মনসিংহে ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার ইসলামপুরের জামিয়া গাফুরিয়া দারুস সুন্নাহ ইসলামপুর মাদরাসার সিনিয়র মুহাদ্দিস ও ঈশ্বরগঞ্জ তাবলিগের মারকাজের মুরুব্বি মুফতি কাউসার হাসানকে ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও উক্ত মাদরাসার সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম বুলবুল অশালীন ভাষায় গালিগালাজ করায় মাদরাসার ছাত্ররা ক্যাম্পাসের ভেতর তার বহিস্কার সহ ৩টি দাবি আদায়ে বিক্ষোভ করছে।

দাবিগুলো হলো, এক- রফিকুল ইসলাম বুলবুলকে অনতিবিলম্বে মাদরাসার কমিটি থেকে বহিস্কার করতে হবে। দুই- মজলিসে শূরা গঠন করতে হবে এবং তাদের হাতেই সার্বিক ক্ষমতা হস্তান্তর করতে হবে। তিন- কমিটির ক্ষমতা মজলিসে শূরার অধিন থাকতে হবে।

আজ রোববার (৭মার্চ) সকাল থেকে এই বিক্ষোভ শুরু করে ছাত্ররা। বিক্ষোভরত ছাত্ররা বলেন, আমরা হুজুরের কাছে ইলমে দীন শিক্ষা করাসহ হাদিসের দরসে অংশগ্রহণ করছি।

বিনা কারণে শরিয়ত এবং ইসলামি আইন অনুযায়ী কথা বলায় হুজুরকে এভাবে হেনেস্তা করা কোনভাবেই বরদাশত করা হবে না। অনতিবিলম্বে মাদরাসার কমিটি থেকে আমরা তার আজীবন বহিস্কার চাই।

যতক্ষণ পর্যন্ত এই দাবি আদায় না হবে আমরা ক্লাস বর্জনের ঘোষণা দিলাম। জানা যায়, গত ৫মার্চ শুক্রবার ইসলামপুর জামে মসজিদে জুমুআর নামাজপূর্ব আলোচনায় ব্লগার এবং মূর্তির বিরুদ্ধে কথা বলেছিলেন মুফতি কাউসার হাসান।

পরবর্তিতে নামাজের পর তাকে এবং মাদরাসার প্রিন্সিপালকে ওই আওয়ামীলীগ নেতা ফোন দিয়ে বিভিন্ন ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে এবং মাদরাসা থেকে বহিস্কারের হুমকিও দেয়। ফলে তখন থেকেই ছাত্রদের ভেতর চাপাক্ষোভ কাজ করতে থাকে পরিশেষে তা আজ প্রকাশ্য বিক্ষোভের রূপ নেয়। তাছাড়া ইতোপূর্বেও তাকে এভাবে গালিগালাজ করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া যায়।

ফেসবুকে লাইক দিন