পাট মন্ত্রণালয়ের কর্মীকে কেরোসিন ঢেলে পুড়িয়ে হত্যাচেষ্টা, কোনরকম বেঁচে ফিরলেন মমতাজ বেগম

ইমান২৪.কম: বরিশালের বানারীপাড়ায় পাট মন্ত্রণালয়ের রিসিপশনিস্ট মমতাজ বেগমকে শরীরের কেরোসিন ঢেলে পুড়িয়ে হত্যাচেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টায় বানারীপাড়া পৌর শহরের ৪নং ওয়ার্ডে ঘোষেরবাড়ি মমতাজ ভিলায় অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা তাকে এ হত্যাচেষ্টা করে বলে পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে।

মমতাজ বেগম পাট মন্ত্রণালয়ের রিসিপশনিস্ট। তিনি বানারীপাড়া সরকারি মডেল ইউনিয়ন ইনস্টিটিউশন (পইলট) বিদ্যালয়ের সাবেক ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মরহুম হাবীবুর রহমান খানের স্ত্রী। তার একমাত্র ছেলে বাবু চাকরির সুবাদে ও দুই মেয়ে স্বামীর সঙ্গে ঢাকায় বসবাস করছেন।

এবিষয়ে প্রতিবেশী লাইলি বেগম গণমাধ্যমকে জানান, ঘটনার সময় মমতাজ বেগম তাকে ফোন দিয়ে বলেন, আমাকে মেরে ফেলছে, আমাকে বাঁচান, এই বলে ফোনটা কেটে যায়। সঙ্গে সঙ্গে তিনি বাসা থেকে বেড় হয়ে দৌড়ে তার ঘরে গিয়ে তাকে পিছনে দরজার পাশে মেঝেতে জামাকাপড় ছেড়া অজ্ঞান হয়ে পড়ে থাকতে দেখতে পান।

ঘরের বিদ্যুৎ নেই, অন্ধকারে পড়ে থাকায় আশপাশের মানুষকে ডেকে নেন। এসময় তিনি ও প্রতিবেশীরা তার স্বর্ণের চেইন ও কানের দুল দেখতে পাননি। এছাড়া ঘরের সামনের ও পিছনে দুটি দরজাই খোলা দেখতে পান। পরে তার আত্মীয়-স্বজনদের খবর দেন।

এসময় মমতাজ বেগমকে সেখান থেকে উদ্ধার করে বানারীপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়।

এ ব্যাপারে বানারীপাড়া উপজেলা ৫০ শয্যা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. গোপাল চন্দ্র শীল গণমাধ্যমকে জানান, মমতাজ বেগমের শরীর থেকে কেরোসিনের গন্ধ পাওয়া গেছে। বর্তমানে তিনি কথা বলতে চাইছেন না এবং প্রচণ্ড আতঙ্কে রয়েছেন। তাকে পরিবারের কিংবা আপনজনের কাছে রেখে চিকিৎসা-সেবা দেয়ার মাধ্যমে সুস্থ করে তুলতে হবে বলেও ডা. গোপাল চন্দ্র শীল জানান।

এ বিষয়ে বানারীপাড়া থানার ওসি মো. হেলাল উদ্দিন গণমাধ্যমকে জানান, মমতাজ বেগম অসুস্থ থাকায় কথা বলতে পারছেন না। এ কারণে ওই ঘটনার বিষয়ে তদন্তপূর্বক দোষীদের বিরুদ্ধে গ্রেফতার চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে বলেও তিনি জানান।

ফেসবুকে লাইক দিন