প্রেমিকার বাড়ির উঠানের মাটি খুঁড়তেই বেড়িয়ে এল প্রেমিকের মরদেহ

ইমান২৪.কম: ময়মনসিংহে নিখোঁজের দুইদিন পর মাটির নিচ থেকে আকাশ (১৬) নামের এক এসএসসি পরীক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শুক্রবার (২১ মে) রাতে সদর উপজেলার অষ্টাধর ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য জিয়াউর রহমানের বাড়ির পেছনে মাটির তিন চার ফুট নিচে গর্ত থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় ইউপি সদস্যের স্ত্রী ও তার জা’কে আটক করেছে পুলিশ। নিহতের পরিবার জানায়, আকাশ উপজেলার অষ্টধর ইউনিয়নের ভুগলি মন্ডলবাড়ি গ্রামের ইউপি সদস্য পদপ্রার্থী আকরাম হোসেনের ছেলে। সে অষ্টধার বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের এ বছর এসএসসি পরীক্ষার্থী ছিল। গত ১৯ মে নিজ বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয় আকাশ।

পরদিন তার বাবা কোতোয়ালি থানায় একটি সাধারণ ডায়রী করেন। কোতোয়ালী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফিরুজ তালুকদার জানান, নিখোঁজের অভিযোগ পেয়ে পুলিশ প্রাথমিক তদন্ত শুরু করে। আকাশের পরিবারের অভিযোগ, অষ্টধর ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য জিয়াউর রহমানের মেয়ে জেসমিন আক্তারের সাথে প্রেমের সম্পর্ক ছিল স্কুলছাত্র আকাশের। এমতাবস্থায় তারা দুজন পরিবারকে না জানিয়ে গত ২ মে কোর্টে গিয়ে বিয়ে করেন।

বিষয়টি জানাজানি হলে গত বুধবার (১৯ মে) রাতে জেসমিন আক্তার ফোন করে আকাশকে তাদের বাড়িতে ডেকে নেয়। আকাশের পরিবারের এমন অভিযোগের প্রেক্ষিতে পুলিশ শুক্রবার ইউপি সদস্য জিয়াউর রহমানের বাড়ি তল্লাশী করে। তল্লাশীর সময় জিয়াউর রহমানের বাড়ির পাশে রক্তের দাগ দেখে সন্দেহ হয়।

সন্দেহ থেকেই বাড়ির চারপাশে খোঁজ নিতে থাকলে জিয়াউর রহমানের উঠানের এক অংশে মাটি খোড়া দেখে পুলিশের সন্দেহ হয়। পরে পুলিশ সেই জায়গায় গর্ত খুঁড়ে চার পাঁচ ফুট মাটির নিচ থেকে আকাশের মরদেহ উদ্ধার করে। এসময় আকাশের চোখসহ শরীরে একাধিকস্থানে আঘাতের চিহ্ন ছিল।

ফেসবুকে লাইক দিন