ভারতে মন্দিরে মুসলিম শ্রমিককে মারধর ও শ্মশানে পুড়িয়ে ফেলার হুমকি

ইমান২৪.কম: উত্তর প্রদেশের ইটাওয়াহ জেলার এক মন্দিরে দানিস নামের এক মুসলিম শ্রমিককে মারধর করেছে একদল হিন্দুত্ববাদী সন্ত্রাসী। এসময় সন্ত্রাসীরা মুসলিম সেই শ্রমিককে শ্মশানে নিয়ে পুড়িয়ে ফেলতে চেয়েছিল।

স্থানীয় বিজেপি নেতা শৈলেন্দ্র ভারমা উদ্দেশ্যমূলকভাবে এ আক্রমণে জড়িত ছিলেন বলে ‘নিউজ ১৮ হিন্দি’র রিপোর্টে জানানো হয়েছে। দানিস বলেন, তিনি ওই মন্দিরে একজন শ্রমিক হিসেবে কাজ করেছেন। যতক্ষণ না মন্দির নির্মাণের ব্যাবস্থাপনায় নিয়োজিত লোকরা তার নাম জানতে পেরেছে ততক্ষণ সবকিছুই ভালোভাবে চলছিল।

স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম তেজাস নিউজের সাথে কথা বলার সময় দানিস বলেছেন, যখন তিনি টাকা চেয়েছেন তখন তাকে একটি ঘরে ডেকে তার নাম জিজ্ঞাসা করা হয়েছিল। যখন তিনি বলেন তার নাম দানিস।

তখন তারা জিজ্ঞাসা করেছিল, তুমি কি মুসলিম? তারপর তারা মূল দরজায় তালা দিয়ে আমাকে দড়ি দিয়ে বেঁধে ফেলে এবং পাইপ দিয়ে মারধর শুরু করে।’ দানিসকে পেটানোর সময় তাকে মন্দিরে চুরি করার অপবাদ দেয়া হয়।

এর মাধ্যমে তারা যে অন্যায় কাজ করছে তা বৈধ বলে প্রমাণ করার চেষ্টা করা হয়েছে। পুলিশ ও তার স্বজনরা ঘটনাস্থলে যাবার পর তাকে মুক্তি দেয়া হয়। দানিস বলেন, ‘মন্দিরের পুরোহিত আমার নখ ও আঙ্গুল কেটে ফেলতে চেয়েছিল এবং শ্মশানে নিয়ে আমার শরীর পুড়িয়ে ফেলতে চেয়েছিলেন। ‘নিউজ ১৮ হিন্দি’ -এর রিপোর্ট অনুসারে শহরের এসপি প্রশান্ত কুমার বলেছেন, ‘এ ঘটনার সাথে জড়িত দু’ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে।’

ফেসবুকে লাইক দিন