রোজিনার বিষয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ে বৈঠক চলছে

ইমান২৪.কম: গতকাল প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রোজিনা ইসলামকে যে হেনস্তা করা হয়েছে সেই বিষয় নিয়ে আজ মঙ্গলবার (১৮ মে) এই মুহূর্তে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ে বৈঠক চলছে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাত করতে গেছেন জাতীয় প্রেস ক্লাবের সভাপতি ফরিদা ইয়াসমিন, রোজিনার পরিবারের সদস্যরা এবং প্রথম আলোর সাংবাদিকরা। তারা অভিযোগ করছেন যে, রোজিনার ওপর যে অমানবিক এবং পাশবিক নির্যাতন করা হয়েছে তা অনাকাঙ্ক্ষিত এবং দুর্ভাগ্যজনক। এই ব্যাপারে তারা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে ন্যায় বিচার প্রত্যাশা করছেন বলে জানা গেছে। এই প্রতিবেদনটি লেখা পর্যন্ত বৈঠকটি চলছিল।

এদিকে প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রোজিনা ইসলামকে সচিবালয়ে আটকে রেখে হেনস্তার ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়েছে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন। মঙ্গলবার (১৮ মে) গণমাধ্যমে কমিশনের জনসংযোগ বিভাগের পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এ নিন্দা জানানো হয়।

মানবাধিকার কমিশনের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘গণমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, অনুমতি ছাড়া করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিনের সরকারি নথির ছবি তোলার অভিযোগে গতকাল দৈনিক প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রোজিনা ইসলামকে সচিবালয়ে পাঁচ ঘণ্টা আটকে রেখে হেনস্তা হয়।

জাতীয় মানবাধিকার কমিশন ওই ঘটনার তীব্র নিন্দা জানায়।’ কমিশনের চেয়ারম্যান নাছিমা বেগম বলেন, দীর্ঘ সময় ধরে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিবের একান্ত সচিবের কক্ষে একজন সাংবাদিককে আটক রাখার বিষয়টি নিন্দনীয়।

গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদে দেখা যায়, রোজিনা অসুস্থ হয়ে পড়লে তাঁকে চিকিৎসার কোনো ব্যবস্থা না করে প্রায় পাঁচ ঘণ্টা আটকে রাখা হয়, যা অমানবিক বলে কমিশন মনে করে। মানবাধিকার কমিশন এ ঘটনার বিষয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিবের কাছে ব্যাখ্যা চেয়ে চিঠি দিয়েছেন বলেও বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

উল্লেখ্য, পেশাগত দায়িত্ব পালনের জন্য গতকাল সোমবার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে গেলে রোজিনা ইসলামকে সচিবালয়ে পাঁচ ঘণ্টার বেশি সময় আটকে রেখে হেনস্তা করা হয়। একপর্যায়ে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। রাত সাড়ে আটটার দিকে পুলিশ তাঁকে শাহবাগ থানায় নিয়ে যায়। রাত পৌনে ১২টার দিকে পুলিশ জানায়, রোজিনা ইসলামের বিরুদ্ধে অফিশিয়াল সিক্রেটস অ্যাক্টে মামলা হয়েছে। তাঁকে এই মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। সূত্র: bangla insider

ফেসবুকে লাইক দিন