হামাসের রকেট থামাতে ব্যর্থতায় হতাশ হয়ে উঁচু ভবনগুলোতে হামলা: ইসরাইলি পাইলটের স্বীকারোক্তি

ইমান২৪.কম: গাজা উপত্যকা থেকে আসা রকেট থামাতে ব্যর্থতাজনিত হতাশা কাটাতেই গাজার উঁচু ভবনগুলোতে ইসরাইল বোমা হামলা চালিয়েছে।এক ইসরাইলি পাইলট এই স্বীকারোক্তি করেছেন। গাজার ৯টি বহুতলবিশিষ্ট আবাসিক ভবনে বোমা হামলায় অংশগ্রহণকারী বেশ কয়েকজন ইসরাইলি পাইলটের সাক্ষাতকার প্রচার করেছে ইসরাইলের চ্যানেল ১২।

এই ৯টি ভবনের একটিতে গাজার বিদেশী কয়েকটি মিডিয়ার অফিসও ছিল। এক পাইলট বলেন, আমাদের প্রতি যা হচ্ছে, গাজার গ্রুপগুলো আমাদের যেভাবে আঘাত করার কাজে সফল হচ্ছে, তাতে আমরা যে হতাশাগ্রস্ত হয়ে পড়েছিলাম, তা ঝেড়ে ফেলতে আমরা টাওয়ারগুলো ধ্বংস করার মনোভাব নিয়ে বিমান হামলায় নেমেছিলাম।

তিনি বলেন, আমরা রকেট বর্ষণ বন্ধ করতে ব্যর্থ হচ্ছিলাম, ওই গ্রুপগুলোর নেতাদের আঘাত হানতে ব্যর্থ হয়েছিলাম। ফলে আমরা টাওয়ারগুলো ধ্বংস করছিলাম। ইসরাইলি প্রতিরক্ষা বাহিনীর (আইডিএফ) হিসাব অনুযায়ী, গাজার ফিলিস্তিনি গ্রুপগুলো ইসরাইলে প্রায় চার হাজার রকেট নিক্ষেপ করে।

এর ফলে ১২ জন নিহত হয়, কয়েক শ’ আহত হয়। গাজায় ইসরাইল আক্রমণের ধারাবাহিকতায় ইসরাইলি সামরিক বাহিনী ৯টি বহুতলবিশিষ্ট ভবন ধ্বংস করে। ওই সময় ইসরাইল দাবি করেছিল যে ফিলিস্তিনি গ্রুপগুলো এসব ভবন ব্যবহার করে।

রাইটস ওয়াচডগগুলো ইসরাইলি দাবি নিয়ে আন্তর্জাতিক তদন্তের আহ্বান করেছিল। ফিলিস্তিনি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের হিসাব অনুযায়ী, গাজায় ইসরাইলি হামলায় অন্তত ২৭৯ ফিলিস্তিনি নিহত হয়। এদের মধ্যে ৬৯ জন শিশু, ৪০ জন নারী। এছাড়া ১,৯১০ জন আহত হয়। গত শুক্রবার মিসরের মধ্যস্ততায় যুদ্ধবিরতি হয়।

ফেসবুকে লাইক দিন