৭১টিভিকে গণমাধ্যম না বলে ইসলামের বিরুদ্ধে ঘৃণা-বিদ্বেষ ছড়ানোর মাধ্যম বললেই যথার্থ হবে

ইমান২৪.কম: ওয়াজ মাহফিল হলো এ দেশের সবচেয়ে বিস্তৃত পাবলিক প্রোগ্রাম। কোনো কোনো বক্তা মাহফিলে বেফাঁস এবং ভুলভাল কথা বলেন-এটা যেমন সত্য, বেশিরভাগ মাহফিলগুলোতে ভালো ভালো কথা বলা হয় সেটা তার চেয়েও সত্য।

৭১টিভি খুঁজে খুঁজে আপত্তিকর কথাগুলোকে যেভাবে হাইলাইট করে প্রচার করে, মাহফিলের হাজারো ভালো কথার একটিকেও কি কখনো প্রচার করেছে? গণমাধ্যম মানে কি শুধু ময়লা-আবর্জনা ঘাঁটার যন্ত্র?

কোনো কোনো মুর্খ বক্তা ওয়াজ মাহফিলে নারীকে নিয়ে বেফাঁস ও মুর্খতাসূলভ উক্তি করে এটা অসত্য নয়, তাই বলে সে সব বক্তব্যের কারণে ধর্ষকরা নারী ধর্ষণে উদ্বুদ্ধ হয়- একটি টিভি চ্যানেল এতো নির্জলা মিথ্যাচার ও কুৎসিত মন্তব্য করতে একটুও বাধলো না!

ওয়াজ মাহফিল থেকে ধর্ষণে উদ্বুদ্ধ হয়েছে-এমন জবানবন্দি আজ পর্যন্ত কোনো ধর্ষক থেকে পাওয়া গেছে? ধর্ষক কখনো ওয়াজ মাহফিলে যাক বা না যাক- ৭১টিভির মতো চ্যানেলগুলো অবশ্যই দেখে।

এসব চ্যানেল যেভাবে নারীকে সারাক্ষণ পণ্য ও ভোগ্য বস্তু হিসেবে উপস্থাপন করে তা থেকে ধর্ষক উৎপাদন হওয়ার কথা, নাকি ফেরেশতা? #৭১টিভিকে_বয়কট_করুন। সুত্র:শায়খ আহমাদুল্লাহর ফেসবুক পেজ থেকে

ফেসবুকে লাইক দিন