হ্যারিকেন ফ্লোরেন্সের আঘাতে বিধ্বস্ত যুক্তরাষ্ট্রের নর্থ ক্যারোলিনার উপকূল, নিহন ৪

ইমান২৪.কম: প্রলয়ঙ্করী সামুদ্রিক ঝড় ‘হ্যারিকেন ফ্লোরেন্স’ প্রচণ্ড বাতাস ও প্রবল বৃষ্টিপাতসহ শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের পূর্ব উপকূলে আঘাত হেনেছে। সেখানে ‘ভয়াবহ’ বন্যার আশঙ্কায় সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

সর্বশেষ খবর অনুসারে হ্যারিকেন ফ্লোরেন্সের আঘাতে চারজনের মৃত্যু হয়েছে।

সতর্কবাণী পৌছানোর প্রায় ৮ ঘণ্টা পর নর্থ ক্যারোলিনার উইলিংটন এলাকায় একটি বাড়ির উপর গাছ উপড়ে পড়লে ভেতরে থাকা পরিবারটির শিশু সন্তান ও তার মা নিহত হন।

অন্যদিকে, হ্যারিকেনের জলোচ্ছ্বাসে বিভিন্ন ময়লা-আবর্জনায় রাস্তা আটকে যাওয়ায় পেন্ডার এলাকায় এক বৃদ্ধা হার্ট অ্যাটাক হয়ে মারা গেছেন। এছাড়া হ্যারিকেনের সময় লিনিয়র এলাকায় জেনারেটর চালাতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে অারও একব্যক্তির মৃত্যু হয়।

ঘূর্ণিঝড়টির কেন্দ্র ঘণ্টায় প্রায় ৯০ মাইল গতিবেগের ঝড়ো হাওয়া নিয়ে নর্থ ক্যারোলিনার রাইটসভিল বিচে আঘাত হেনেছে। ইতোমধ্যেই ঝড়ের প্রকোপে উপকূলীয় অঞ্চল ভেসে গেছে। বহু মানুষ দুর্যোগ থেকে উদ্ধার পাওয়ার আশায় বর্তমানে নিউ বার্ন শহরে আশ্রয় নিয়েছে।

প্রায় পাঁচ লাখ মানুষকে ওই অঞ্চল থেকে সরে যেতে বলেছে কর্তৃপক্ষ।

রাজ্যের জরুরি অবস্থা মোকাবেলায় নিয়োজিত কর্তৃপক্ষের তথ্যমতে, নর্থ ক্যারোলিনাজুড়ে প্রায় পাঁচ লক্ষ বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ার ঘটনা ঘটেছে।

নর্থ ক্যারোলিনার গভর্নর র্যে কুপার বলেছেন, এই ঝড়ের মধ্যে টিকে থাকতে হলে ‘সহনশক্তি, দলবদ্ধ হয়ে কাজ করার ক্ষমতা, কমনসেন্স, এবং ধৈর্যের’ পরীক্ষা দিতে হবে।

ন্যাশনাল ওয়েদার সার্ভিসের পূর্বাভাসদাতা ব্র্যান্ডন লকলিয়ার বলেছেন, নর্থ ক্যারোলিনায় আট মাসে যত বৃষ্টিপাত হয়, সেই পরিমাণ বৃষ্টিপাত আগামী দুই-তিন দিনে দেখা যাবে।

হ্যারিকেন ফ্লোরেন্স থেকে কয়েক হাজার মাইল দূরে একটি বিশাল টাইফুন ঝড় ফিলিপিনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। ‘সুপার টাইফুন মাঙ্খুট’ নামের ঘূর্ণিঝড়টিতে ৫০ লাখ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

আরও পড়ুনঃ আলৌকিকভাবে শুধুমাত্র কুরআনের আয়াত দেখতে পান অন্ধ ইয়াসারি!

নামাজেই ২০০০ বার কুরআন খতম!!! -শায়েখ উসামার কুরআনপ্রেম

ফেসবুকে লাইক দিন