হঠাৎ বিএনপির কর্মসূচির ডাক, যে কারন জানা গেল

ইমান২৪.কম: ঢাকা-১৮ ও সিরাজগঞ্জ-১ আসনে উপনির্বাচনে ফলাফল বাতিল এবং নেতা কর্মীদের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মিথ্যা মামলায় গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে শনিবার ও রোববার দুইদিনের বিক্ষোভ কর্মসূচি ঘোষণা করেছে বিএনপি।

শনিবার রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এবং আগামী রোববার সারাদেশে জেলা সদরে এই প্রতিবাদ সমাবেশ হবে। শুক্রবার বিকেলে বিএনপির চেয়ারপারসনের গুলশান রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক জরুরি সংবাদ সম্মেলনে দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এই কর্মসূচি ঘোষণা করেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, বৃহস্পতিবার প্রতিটা সেন্টারের সামনে বাইরের থেকে লোকজন এনে দাঁড় করে রাখা হয়েছে, যাকে ইচ্ছে হয়েছে তাকেই মেরে বের করে দেয়া হয়েছে। এখানে নির্বাচনের নরমাল যে পদ্ধতি এর কোনো কিছুর সুযোগ পর্যন্ত নির্বাচন কমিশন বলুন আর যারা দেশ চালাচ্ছে তারা রাখেনি।

সবচেয়ে বড় কথা পুলিশ এসব অপকর্মে সহযোগিতা করেছে। আওয়ামী লীগ নানা মিথ্যাচার করবে এই নির্বাচনকে জাস্টিফাই করার জন্য। কিন্তু কোনোভাবে এই নির্বাচন গ্রহণযোগ্য হতে পারে না। তিনি আরও বলেন, কালকে যে ঘটনাগুলো ঘটেছে এটা ন্যাক্কারজনক ঘটনা।

এই ধরণের ঘটনা গণতান্ত্রিক পরিবেশকে সাহায্য করে না, ক্ষতিগ্রস্থ করে। সে বিষয়ে আমরা যতটুকু খবর পেয়েছি, একটি টিভি চ্যানেলেও খবর প্রকাশ হয়েছে যে, ছাত্রলীগের এক ছেলেকে গতকালের ঘটনায় গ্রেপ্তারও করা হয়েছে এবং সে বলেছে যে, তাকে পয়সা-টয়সা দিয়ে নিয়ে এসব করিছেন আওয়ামী লীগের লোকেরা।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও এই খবরটি প্রকাশ হয়েছে। ফখরুল বলেন, যে উপনির্বাচনটা হলো এটা একেবারেই নির্বাচন হয় নাই। এটা একটা পাতানো ও জালিয়াতি নির্বাচন হয়েছে। সেটা থেকে জনগনের দৃষ্টিকে দূরে রাখার জন্য এই বাস পোড়ানোর ঘটনাগুলো ঘটানো হচ্ছে।

এটা নিঃসন্দেহে সরকারের একটা পরিকল্পনা যে নির্বাচন প্রক্রিয়াটা ধ্বংস করা এবং দেশে এক দলীয় শাসন ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা করা তারই নমুনা আমরা দেখতে পারছি।

ফেসবুকে লাইক দিন