হটাৎ খালেদা জিয়া ও তারেকের কাছে ক্ষমা চাইলেন মির্জা আব্বাস

ইমান২৪.কম: বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে মুক্ত করতে না পারায় দুঃখ প্রকাশ করেছেন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস। সোমবার (০৮ ফেব্রয়ারি) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বেগম জিয়ার কারাবন্দি জীবনের ৩ বছর পূর্ণ হওয়া উপলক্ষে বিএনপি আয়োজিত কেন্দ্রঘোষিত প্রতিবাদ সমাবেশ করে বিএনপি।

সেখানে বক্তব্য দেওয়ার সময় আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন মির্জা আব্বাস। এ সময় তিনি বলেন, আমরা শুরুতেই ক্ষমা চাই খালেদা ও তারেক রহমানের কাছে। কারণ আমরা তাদের মুক্ত করতে পারিনি। তবে চিরদিন তারা বন্দি থাকবেন না। তাদের আমরা অবশ্যই মুক্ত করব। স্থায়ী কমিটির আরেক সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, খালেদা জিয়া আজ তিন বছর ধরে কারাগারে, আবার কখনও ‘গৃহবন্দি’।

সরকারের ইচ্ছায় আদালত কর্তৃক শাস্তির নামে তার সঙ্গে অন্যায় করা হচ্ছে। গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করতে হলে খালেদার মুক্তি দরকার। তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম আলজাজিরায় যা প্রকাশ করা হয়েছে, তা এমন দুর্নীতির একশ ভাগের এক ভাগ। তথ্যপ্রমাণ দিয়ে সরকারের প্রমাণ করতে হবে আলজাজিরা ঠিক নয়।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সভাপতি হাবিব-উন-নবী খান সোহেলের সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সমাবেশে আরও বক্তব্য দেন- বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান, হাবিবুর রহমান হাবিব, সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী,

যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, বিএনপির তথ্যবিষয়ক সম্পাদক আজিজুল বারী হেলাল, যুবদলের সভাপতি সাইফুল আলম নীরব, সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দীন টুকু, সিনিয়র সহ-সভাপতি মোর্তাজুল করিম বাদরু,

বিএনপির সহ-প্রচার সম্পাদক আমিরুল ইসলাম খান আলিম, স্বেচ্ছাসেবক দলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদের ভূইয়া জুয়েল, কৃষকদলের সদস্য সচিব কৃষিবিদ হাসান জাফির তুহিন, ছাত্রদলের সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন, সিনিয়র সহ-সভাপতি কাজী রওনকুল ইসলাম শ্রাবন ও সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফ মাহমুদ জুয়েল প্রমুখ।

ফেসবুকে লাইক দিন