সিরাজগঞ্জে কিশোরীকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে ধর্ষণ

ইমান২৪.কম: সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় আফসানা খাতুন নামের এক কিশোরীকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে ধর্ষণ করেছে পাশের বাড়ির আমীরুল ইসলাম। ধর্ষণের অপমান সইতে না পেরে অবশেষে কিশোরীটি আত্মহত্যা করে।

আফসানার পরিবারের অভিযোগ, মঙ্গলবার রাতে আফসানাকে ধর্ষণ ও মারধর করা হয়। ওই রাতেই সে কীটনাশক পান করে। বুধবার বিকেলে তার মৃত্যু হয়। আফসানা উল্লাপাড়া উপজেলার শিমলা মোড়দহ গ্রামের আলতাফ হোসেন তালুকদারের মেয়ে।

স্থানীয় বিনায়েকপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী ছিল সে। জানা যায়, প্রতিবেশী আমিরুল ইসলাম বারুর ছেলে আরিফুল ইসলামের সঙ্গে প্রায় ছয় মাস আগে প্রেমের সম্পর্ক হয় আফসানার।

মঙ্গলবার রাতে আফসানাকে কৌশলে নিজের বাড়িতে ডেকে নেয় আরিফুল। সেখানে মেয়েটিকে ধর্ষণ করে সে।

পরে আফসানা আরিফুলের বাড়ি ছেড়ে যেতে না চাইলে তাকে বেধড়ক মারধর করা হয়। এরপর আরিফুল ও তার পরিবারের সদস্যরা আফসানাকে বাড়ি থেকে বের করে দেয়।

এ অপমান সইতে না পেরে নিজ বাড়িতে ফিরেই কীটনাশক পান করে আফসানা। পরিবারের সদস্যরা তাকে দ্রুত উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

সেখানে তার অবস্থার অবনতি হয়। বিকেলে আফসানাকে বগুড়া জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে সে মারা যায়। উল্লাপাড়া মডেল থানার এসআই আব্দুল কাদের জানান, আফসানার লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

এ ঘটনায় নিহতের বাবা আলতাফ হোসেন মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত আরিফুল ও তার বাড়ির সবাই পলাতক রয়েছে।

আরও পড়ুন: দুই ইউপি চেয়ারম্যানসহ বিএনপি-জামায়াতের ১৯ 

হাজার কোটি টাকা পাচার’ মামলায় ক্রিসেন্ট গ্রুপের 

আগুনে পুড়ে ছাই ২০টি দোকান, অক্ষত শুধু পবিত্র কোরআন!

ফেসবুকে লাইক দিন