সাসপেন্ড হওয়া পুলিশের প্রতি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলো সৌদি প্রবাসীরা

আরিফ জাব্বার: বাংলাদেশে কওমী মাদ্রাসাভিত্তিক সংগঠন হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব আল্লামা মামুনুল হককে নিয়ে কিছুদিন পূর্বে নারায়ণগঞ্জের একটি রিসোর্টে পরিকল্পিত নাটকীয় পরিস্থিতির সৃষ্টি করেছিলো কিছু ছাত্রলীগ- যুবলীগ নেতাকর্মী ।

কয়েক ঘন্টা সেখানে অবরুদ্ধ করে নানা ভাবে আল্লামা মামুনুল হক সাহেবকে তারা অপমান এমনকি কেউ কেউ গায়ে হাত তুলে,নববী সুন্নতকে অপমান ও করে তারপর হেফাজতে ইসলামের সমর্থক এবং মাদ্রাসার ছাত্ররা আল্লামা মামুনুল হক সাহেবকে ছিনিয়ে নিয়ে যায় বলে জানিয়েছেন সোনারগাঁও থানার একজন পুলিশ কর্মকর্তা।

সে সূত্রে সারা বাংলাদেশেরর ইসলাম ও উলামা প্রিয় ধর্মপ্রান মুসলমানরা এমন হতাশাজনক ঘটনায় সবাই যার যার স্থান থেকে প্রতিবাদ জানায়। তেমনিভাবে প্রতিবাদ জানায় একজন ধর্মপ্রান পুলিশ ভাই ,যার নাম গোলাম রব্বানী, বাড়ী দিনাজপুর ,কুষ্টিয়াতে চাকরি করতেন৷

আল্লামা মামুনুল হক দা:বা:কে নিয়ে তিনি নৈতিকতার বিচারে ছোট্ট একটি লাইভ করায় প্রশাসন কর্তৃপক্ষ তাঁকে সাসপেন্ড করেছে৷

সৌদী থেকে কিছু ভাই উদ্যোগ নিয়েছেন যে, গোলাম রব্বানী ভাইর বেতন চালু হওয়া পর্যন্ত তার সমস্ত খরচ সৌদী প্রবাসী ভাইয়েরা বহন করবেন৷

এ বিষয়ে প্রবাসী আরিফ জাব্বার তার ফেসবুক আইডিতে একটি পোষ্ট দেন। নিচে তা তুলে ধরা হলো, পুলিশ ভাইর নাম গোলাম রব্বানী, দিনাজপুর বাড়ী, কুষ্টিয়াতে চাকরি করতেন৷ মূল কথা: আল্লামা মামুনুল হক দা:বা:কে নিয়ে তিনি নৈতিকতার বিচারে ছোট্ট একটি লাইভ করায় প্রশাসন কর্তৃপক্ষ তাঁকে সাসপেন্ড করেছে৷ তবে আমি দৃঢ়তার সাথে বলতে পারি তিনি আলেমদেরকে মুহাব্বত করার কারণে নিঃসন্দেহে আল্লাহর নিকট মাহবুব হয়ে গেছেন৷ সৌদী থেকে কিছু ভাই উদ্যোগ নিয়েছেন যে, গোলাম রব্বানী ভাইর বেতন চালু হওয়া পর্যন্ত তার সমস্ত খরচ সৌদী প্রবাসী ভাইয়েরা বহন করবেন৷ এবং বর্তমানে তার মানসিক প্রেসার দূর করার জন্য তাঁকে কিছু মুসাআদা করবেন৷ আল্লাহ তাআলা প্রবাসী ভাইদেরকে হালাল রুজীতে বরকত দান করেন এবং সকলকে ঈমানের দাবীতে সত্য উচ্চারণ ও ন্যায়কে গ্রহণ করার সৎসাহস দান করেন৷

(সোশ্যাল মিডিয়া ক্যাটাগরিতে প্রকাশিত সব লেখা একান্তই লেখকের নিজস্ব মতামত। এর সাথে পত্রিকার কোন সম্পর্ক নেই)

ফেসবুকে লাইক দিন