সরকার পতনে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের আহ্বান মান্নার

ইমান২৪.কম: নাগরিক ঐক্যের আহবায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না দেশে নির্বাচনি ব্যবস্থা ভেঙ্গে পড়েছে দাবি করে সরকার পতনে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের আহবান জানিয়েছেন। বুধবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে জাতীয় সংহতি মঞ্চ আয়োজিত মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, দেশের মানুষের ভোটের অধিকার নেই। এই সরকারের বিচার করতে হলে ভোটের দিকে তাকালে চলবে না। দেশের মানুষকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে আন্দোলন করতে হবে। সরকারের বিদায় ঘণ্টা বেজে গেছে।

ওই সভায় ১১ দফা দাবি তুলে ধরে জাতীয় সংহতি মঞ্চের নেতারা। এতে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের প্রধান সমন্বয়কারী একেএম আশরাফুল হক।

সভায় মাহমুদুর রহমান মান্না আরও বলেন, দাবি একটাই হবে। সেটা হলো এ সরকারের পতন। এক দফা দাবিতে আমাদের সবাইকে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। আন্দোলনের মাধ্যমে এই সরকারকে ক্ষমতা থেকে নামাতে হবে।

তিনি বলেন, এই সরকারের বিরুদ্ধে গণতন্ত্র উদ্ধারে আন্দোলন করব আমরা। সরকারের দুই নম্বরি রুখে দিয়ে প্রতিবাদ করতে হবে। আন্দোলন করে এই সরকারের পতন ঘটাতে হবে। তারপর নির্বাচন।

তিনি আরও বলেন, আমাদের বাঁচতে হলে সংহতি দরকার। পুরো ভোটের পদ্ধতি ধ্বংস করেছে, যা আওয়ামী লীগের নেতারা বলা শুরু করেছে। সারাদেশের মানুষ সরকারের অপকর্মের কথা বলা শুরু করেছে। কতজনের মুখ বন্ধ করবেন?

এ কে এম আশরাফুল হক বলেন, বর্তমান সরকারের এই দুঃশাসন থেকে মুক্ত করতে জাতিকে বৃহত্তর আকারে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। রাজপথের কর্মসূচি ছাড়া বর্তমান পরিস্থিতি থেকে মুক্তি মিলবে না।

জাতীয় প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি শওকত মাহমুদ বলেন, এই সরকার জালেম সরকার। এই সরকার আলেমদের কোথাও ওয়াজ-মাহফিল করতে দিচ্ছে না। আলেমদের সত্য কথা বলার কারণে দেশছাড়া করছে। তাই এই সরকারের বিরুদ্ধে ঐক্য গড়ে তুলতে হবে।

এবি পার্টির মহাসচিব মজিবুর রহমান মঞ্জু বলেন, দেশের মানুষ ১৯৫২, ১৯৮৯ ও ১৯৯০ সালে ঐক্য হয়েছিল। স্বৈরাচারি সরকারের পতন ঘটাতে হলে ওই ধরনের ঐক্য প্রয়োজন। বাংলাদেশ চরম সংকটে পড়েছে।

ফেসবুকে লাইক দিন