সম্ভ্রম বাঁচাতে চলন্ত বাস থেকে ছাত্রীর লাফ

ইমান২৪.কম: হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলায় সম্ভ্রম বাঁচাতে চলন্ত বাস থেকে কলেজ পড়ুয়া এক ছাত্রী লাফ দেন। শ্লীলতাহানির অভিযোগে লাকী পরিবহন নামের ওই বাসের চালক রিয়াদ মিয়া (৪৫) ও হেলপার ইব্রাহিম খলিল রুবেল (৩৫) কে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছেন স্থানীয়রা।

রবিবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে নবীগঞ্জ শহরের ওসমানী রোডে বাসসহ ওই চালক-হেলপারকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেন স্থানীয়রা।

আটককৃত- বাস চলক রিয়াদ মিয়া ফরিদপুর জেলার ভাঙ্গা উপজেলার তুজারপুর গ্রামের মজিদ মিয়ার ছেলে ও হেলপার ইব্রাহিম খলিল রুবেল নরসিংদী জেলার পলাশ উপজেলার ইসাখালি গ্রামের রফিজ উদ্দিনের ছেলে।

জানা যায়, গত শনিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) সকালে নবীগঞ্জ পৌর এলাকার তিমিরপুর গ্রামে বৃন্দাবন কলেজের অনার্স ১ম বর্ষে পড়ুয়া এক ছাত্রী কলেজে যাওয়ার উদ্দেশ্যে নবীগঞ্জ-হবিগঞ্জ সড়কের তিমিরপুর এলাকায় দাঁড়িয়ে ছিল।

এসময় আজমিরীগঞ্জ-বানিয়াচং-হবিগঞ্জ-ঢাকা সড়কে যাতায়াতকারী ঢাকাগামী যাত্রীবাহী লাকী পরিবহনের ঢাকা মেট্রো (ব-১৫-৩৪৬৪) বাস তিমিরপুর দাঁড় করিয়ে ওই শিক্ষার্থীকে গাড়িতে উঠায়। পথিমধ্যে শিক্ষার্থীকে অশ্লীল ভঙ্গিতে নানা ধরণের তুচ্ছতাচ্ছিল্য করে ও শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে। এক পর্যায়ে নিজেকে রক্ষা করতে চলন্ত বাস থেকে লাফ দেন ওই শিক্ষার্থী।

পরে ওই শিক্ষার্থী পরিবারের সদস্যদের বিষয়টি অবগত করেন। রবিবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে নবীগঞ্জ শহরের ওসমানী রোডের আরজু হোটেলের সামনে স্থানীয় জনসাধারণ লাকী পরিবহনের ওই বাসসহ বাস চালক ও হেলপারকে আটক করে। পরে উত্তম মাধ্যম দিয়ে বাস চালক ও হেলপারকে পুলিশে সোপর্দ করে স্থানীয়রা।

এ ব্যাপারে নবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ডালিম আহমেদ বলেন, শিক্ষার্থীকে শ্লীলতাহানির অভিযোগে বাস চালক ও হেলপারকে আটক করা হয়েছে।

ফেসবুকে লাইক দিন