রাষ্ট্রীয়ভাবে আলেমদের বিরুদ্ধে বিষোদগার জাতির জন্য দুর্ভাগ্য ডেকে আনে: অধ্যাপক খালিদ হোসেন

ইমান২৪.কম: চট্টগ্রামের ওমর গণি এম ই এস কলেজের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক ড. আ ফ ম খালিদ হোসেন বলেছেন, আলেম উলামারা হচ্ছেন জাতির আধ্যাত্মিক রাহবার।

রাষ্ট্রীয়ভাবে তাদের বিষোদগার করা মানে জাতির জন্য দুর্ভাগ্য ডেকে আনা।

বুধবার (২৩ ডিসেম্বর) রাত ৮টায় সিলেটের মাদরাসা জামেয়া তাওয়াক্কুলিয়া রেঙ্গার বার্ষিক মাহফিলে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ড. আ ফ ম খালিদ হোসেন এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, আলেমরা হচ্ছে নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের উত্তরসূরি। তারা সমাজে শান্তি প্রতিষ্ঠায় সর্বাবস্থায় অশ্রু ফেলে আল্লাহর কাছে ফরিয়াদ করে।

ইহকালের কোন লোভ লালসা ছাড়াই পৃথিবীর আনাচে-কানাচে ইসলামের দাওয়াত দিয়ে থাকেন। হক ও শান্তির সুগম পথে আহ্বান করে।

তিনি আরও বলেন, এদেশে কুরবানী করা যেতো না, কিন্তু যুগের হক্কানি রব্বানী আলেম উলামারা জেল, জুলুম, নির্যাতন সহ্য করে গলায় ফাঁসির দড়ি হাসিমুখে বরণ করে দেশের প্রতিটি পরতে পরতে ইসলামের দাওয়াত পৌঁছে দিয়েছেন, মাদারিসে কাওমিয়া প্রতিষ্ঠা করেছেন, মানুষকে ইসলামী শিক্ষায় শিক্ষিত করে গড়ে তুলেছেন।

ড. আ ফ ম খালিদ হোসেন বলেন, এই দেশ, সংস্কৃতি, ভাষা ও স্বাধীন মানচিত্র সবকিছুর পিছনে মুসলমানদের এবং আলেমদের ভূমিকা আছে; ইতিহাসের পাতা খোলে দেখুন, এই দেশের নাম বাংলাদেশ ছিলনা, এই রাজ্যে সেলাইবিহীন কাপড় পরত মানুষ, মুসলিম শাসকই সেলাইযুক্ত কাপড় পরা শিখিয়েছেন, এই ভাষা আল্লাহর অনেক বড় নেয়ামত, ভাষা আন্দোলনে যারা শহীদ হয়েছেন সবাই মুসলমান ছিল।

ভারতবর্ষ স্বাধীন করেছিলো আলেমরা, মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসের আলেমদের ভূমিকা ছিলো অনস্বীকার্য। যারা মুসলমান এবং আলেমদের নিয়ে বিষোদগার করে তারা অজ্ঞ।

ফেসবুকে লাইক দিন