মূর্তির বিরুদ্ধে আন্দোলন করা মুসলমানদের ঈমানী দায়িত্ব: মুফতি সুলতান মহিউদ্দিন

ইমান২৪.কম: বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মুফতি সুলতান মহিউদ্দিন বলেছেন,

কোনো প্রাণীর-মূর্তি নির্মাণ করা ইসলামী শরীয়তে কঠিন কবীরা গুনাহ ও হারাম।

মূর্তি তৈরী, মূর্তি স্থাপন, মূর্তি সংরক্ষণ এবং মূর্তির বেচাকেনা ইত্যাদি ইসলামে কঠিনভাবে নিষিদ্ধ।

মূর্তির বিরুদ্ধে নবী-রাসুল ও ওলী-আউলিয়াগণ সংগ্রাম করে গেছেন। এজন্য বর্তমান উলামায়ে কেরাম ও ধর্মপ্রাণ মুসলমানগণ আন্দোলন করে যাচ্ছেন।

মূর্তির বিরুদ্ধে আন্দোলন করা প্রত্যেক মুসলমানদের ঈমানী দায়িত্ব।

শুক্রবার (২৭ নভেম্বর) সংবাদমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে তিনি এসব কথা বলেন।

মুফতি সুলতান বলেন, যারা মূর্তির বিরুদ্ধে আন্দোলনরত উলামায়ে কেরাম ও তৌহিদী জনতার আন্দোলনে বাধা দিয়ে এ দেশকে মূর্তি ও রামরাজ্য বানাতে চায় তারা ফেরাউন, নমরূদ ও আবু জাহেলের প্রেতাত্মা, ইতিহাসে তারা ঘৃণিত হয়ে থাকবে।

ইসলামের দৃষ্টিতে মূর্তি ও ভাস্কর্য দুটোই পরিত্যাজ্য, অপব্যাখ্যাকারীরা ইসলামের শত্রু।

ভাস্কর্যের নামে মূর্তি স্থাপনের পরিবর্তে ইসলামী স্মৃতিসৌধ বা আল্লাহ ও মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর নামের মিনার বানানোর জন্য সরকারের প্রতি আহবান জানাচ্ছি।

ফেসবুকে লাইক দিন