মারে বইলেন না কান্নাকাটি করবে, তল্লা থেকে ঢাকা পর্যন্ত মুখে শুধু আল্লাহ আল্লাহ শব্দটা শোনা যাচ্ছিল

ইমান২৪.কম: এশার নামাজ চলাকালে নারায়ণগঞ্জ শহরে তল্লা বাইতুস সালাম ম’সজিদে এসি বি’স্ফোরণের ঘটনায় মৃ’ত্যু বরণ করেছে নয়ন নামের এক যুবক৷

মৃ’ত্যুর আগে নয়নকে কোলে করে নিয়ে এম্বুলেন্সে তুলে দেওয়া এক ব্যক্তি বলেন, ছেলেটিকে আমি যখন বললাম তোমার আম্মুর নাম্বার বলো ছেলেটি শুধু বললো জামাতে দাড়ানের আগে আমি মার সাথে কথা বলছি ডায়াল কলে নাম্বারটা দেখেন লাষ্টে ৮০৩।

আমি যখন কল করি তখন ছেলেটি শুধু বললো আমার মা’রে বইলেন না কান্না কাটি করবো। আমি ওর বোনকে কল দিয়ে জানাই ওর বোন আমাকে বললো ভাইয়া আমরা রওনা দিচ্ছি আপনি আমার ভাইকে একটু খেয়াল রাইখেন।

ভাবতেই কষ্ট লাগে,বোনরে তর ভাই না ফেরার দেশে চলে গিয়েছে। তল্লা থেকে ঢাকা পর্যন্ত নয়নের মুখে শুধু আল্লাহ আল্লাহ শব্দটা শোনা যাচ্ছিল। এদিকে নারায়ণগঞ্জের পশ্চিম তল্লা বায়তুস সালাত জামে মসজিদে একসঙ্গে ছয়টি এসির বি’স্ফোরণের ঘটনায় মৃ’তের সংখ্যা বেড়ে ২০ জনে দাঁড়িয়েছে।

তারা সবাই রাজধানীর শেখ হাসিনা বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন ছিলেন। নি’হত অন্যদের মধ্যে যাদের নাম পাওয়া গেছে, তারা হলেন, মসজিদের মুয়াজ্জিন মো. দেলোয়ার (৪৫), জুয়েল (৭), মো. জামাল (৪০),

সাব্বির (১৮), জুবায়ের (১৮), হুমায়ুন কবীর (৭০), কুদ্দুস বেপারী (৭০), মো. ইব্রাহিম (৪২), মোস্তফা কামাল (৩৪), রিফাত (১৮), জোনায়েদ (১৬), (১২), রাশেদ (৩০), মো. বাহাউদ্দীন (৫৫) ও মো. মিজান (৪০)।

উল্লেখ্য, গতকাল শুক্রবার রাত সাড়ে আটটার দিকে নারায়ণগঞ্জ শহরের খানপুর তল্লা এলাকার বায়তুস সালাত জামে মসজিদে এশার নামাজের সময় এসি বি’স্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় অর্ধ-শতাধিক মু’সল্লি আ’হত হন।

ফেসবুকে লাইক দিন