মানচিত্র পাল্টিয়ে এবার দলবল নিয়ে ভারতের সীমান্তে নেপালের সেনাপ্রধান

ইমান২৪.কম: পাকিস্তান-চীন, অন্যদিকে নেপাল। ভারত যেন ত্রিমুখী চাপে পড়েছে। এরই মধ্যে নেপালের পার্লামেন্ট পাস হয়ে গেছে সরকারি মানচিত্র, যার মধ্যে রয়েছে বিতর্কিত তিনটি জায়গা।

যে জায়গাগুলো একই সাথে ভারত ও নেপাল নিজেদের বলে দাবি করছে। এই অবস্থায় সীমান্তের কাছে নেপাল সেনা বাড়াচ্ছে।

মানচিত্র বিতর্কের মধ্যে সীমান্তে দলবল নিয়ে পরিদর্শনে যান নেপালের সেনাপ্রধান পূর্ণ চন্দ্র থাপা।

সেখানে কালাপানি এলাকার কাছে দারচুলা বর্ডার পোস্ট পরিদর্শন করেন এবং নতুন পুলিশ হেডকোয়ার্টারের উদ্বোধন করেন। খবর স্পুৎনিকের।

কালাপানি, লিপুলেখ ও লিপিয়াধুরাকে নিজেদের মানচিত্রে রেখেছে নেপাল। ভারতের সঙ্গে সীমান্ত সমস্যা তৈরি হওয়ার পর এই প্রথম ওই এলাকা পরিদর্শনে গেলেন নেপালের সেনাপ্রধান। তার সঙ্গে ছিলেন নেপালের আর্মড পুলিশ ফোর্সের ইন্সপেকটর জেনারেল শৈলেন্দ্র খানাল।

দারচুলায় একটি নতুন পুলিশ হেডকোয়ার্টারের উদ্বোধন করেন তিনি। পাশাপাশি দারচুলা-তিনকার রোডও পরিদর্শন করেন।

পরিদর্শনের সময় সেনাপ্রধান জানিয়েছেন, দারচুলা জেলায় ডামলিং, দারচুলা, লেকাম, লালি, মালিকার্জুন ও জলজিবি এলাকায় আরো ৬টি বর্ডার চেক পোস্ট তৈরি হবে। এছাড়া ছাংড়ুতে একটি হাসপাতাল তৈরির কথাও জানিয়েছেন তিনি।

এই মুহূর্তে সীমান্তে নেপালের ১২১টি সেনা চৌকি রয়েছে। এবার একধাক্কায় সেই সংখ্যা বাড়িয়ে ২২১ করার সিদ্ধান্তও নিয়েছে নেপাল।

নেপালের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে কেদারনাথ শর্মা এই তথ্যের সত্যতা স্বীকার করে নিয়েছেন৷ শুধু তাই নয়, সেই সংখ্যা লাগাতার বৃদ্ধি করে সব মিলিয়ে প্রায় পাঁচশটি চৌকি তৈরি করার পরিকল্পনা করছে নেপাল সরকার।

ফেসবুকে লাইক দিন