মসজিদের মেঝেতে পড়েছিল ইমামের লাশ, নামাজ পড়তে গিয়ে দেখলেন মুসল্লিরা

ইমান২৪.কম: জোহরের নামাজ আদায় করার জন্য মুসল্লিরা মসজিদে গেলে ইমাম ফয়জুল করিমকে মসজিদের মেঝেতে পড়ে থাকতে দেখেন। মুসল্লিরা ফয়জুল করিমের ডান হাতে পোড়া দাগ দেখতে পান। ঘটনাটি ঘটেছে নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলার চর জব্বর ইউনিয়নে।

ধারণা করা হচ্ছে তিনি যোহরের নামাজের আজান দেওয়ার জন্য বিদ্যুতের সুইচে হাত দিতে গিয়ে বিদ্যুতায়িত হয়েছেন।

মঙ্গলবার দুপুরের দিকে উপজেলার চর জুবিলীর মোহাম্মদপুর গ্রামের মসজিদে ঘটনাটি ঘটে। চরজব্বর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জিয়াউল হক বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ফয়জুল করিমের বাড়ি উপজেলার চর ওয়াপদার চর বৈশাখী গ্রামে। তিনি মৃত রফিকুল ইসলামের ছেলে। তিনি উত্তর বাগ্যা মোহাম্মদীয়া জামে মসজিদের ইমাম ছিলেন।

মোহাম্মদীয়া জামে মসজিদ কমিটির সাধারণ সম্পাদক মহিউদ্দিন জানান, জোহরের নামাজ আদায় করার জন্য মুসল্লিরা মসজিদে গেলে ইমাম ফয়জুল করিমকে তাঁরা মসজিদের মেঝেতে পড়ে থাকতে দেখেন। মুসল্লিরা ফয়জুল করিমের ডান হাতে পোড়া দাগ দেখতে পান। তাঁকে দ্রুত সুবর্ণচর উপজেলার ৫০ শয্যা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। কর্তব্যরত চিকিৎসক ফয়জুল করিমকে মৃত ঘোষণা করে।

মসজিদ কমিটির সাধারণ সম্পাদক মহিউদ্দিন আরও জানান, ধারণা করা হচ্ছে তিনি যোহরের নামাজের আজান দেওয়ার জন্য বিদ্যুতের সুইচে হাত দিতে গিয়ে বিদ্যুতায়িত হয়েছেন।

ফেসবুকে লাইক দিন