ভাস্কর্য ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলেমদের সাক্ষাত

ইমান২৪.কম: ভাস্কর্য ইস্যুতে অচিরেই প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাত করবেন আলেমরা। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য নির্মাণের পরিবর্তে আল্লাহর নাম খচিত ‘মুজিব মিনার’ নির্মাণের প্রস্তাব দিবেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে।

গতকাল শনিবার (৫ ডিসেম্বর) সকালে ভাস্কর্য নিয়ে দেশের চলমান অস্থিরতা ও সাম্প্রতিক সঙ্কট বিষয়ে আলেমদের করণীয় শীর্ষক বৈঠক বসেছিলো রাজধানীর যাত্রাবাড়ী মাদরাসা। বৈঠকে দেশের সব ধারার আলেমরা যোগ দেন। সব মত ও দলের মিলনমেলা বসেছিলো সেখানে।

জাতীয় কোনো ইস্যুতে দেশের সব ধারার আলেমরা যে এক প্লাটফরমে মিলিত হতে পারেন সেটা বৈঠকের অবয়ব ও উপস্থিতি সহজেই অনুমান করা গেছে। বৈঠকে দেশের সকল আলেমদের রাজনৈতিক দল, উপদল ও খানকাহি সিলসিলার সকল আধ্যাত্মিক রাহবারগণও উপস্থিত ছিলেন।

যারা নিজেরা উপস্থিত হতে পারেননি তারা পাঠিয়েছিলেন নিজেদেরে প্রতিনিধি। সব মিলিয়ে দেশের আপামর ছাত্র-শিক্ষক ও ধর্মীয় জনগোষ্ঠির বর্তমান অভিভাবক, কওমি মাদ্রাসার শিক্ষা বোর্ড বেফাকের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও আল হাইয়াতুল উলিয়া লিল জামিয়াতিল কওমিয়া বাংলাদেশের চেয়ারম্যান আল্লামা মাহমুদুল হাসান প্রমাণ করেছেন, দেশের আলেমদের মাঝে কোনো বিভেদ নেই। যে কোনো ইস্যুতে এক হওয়ার সক্ষমতা রাখেন আলেমরা। গতকালের বৈঠকে সভাপতিত্বও করেন তিনি।

বৈঠক সূত্রে জানা গেছে, ভাস্কর্য ইস্যুতে ৫টি প্রস্তাব ও ৩টি সিদ্ধান্ত নিয়েছেন আলেমরা। এসব বিষয় প্রধানমন্ত্রীকে জানাতেই তার সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন আলেমরা।

গতকালের বৈঠক শেষে বেফাকের মহাসচিব মাওলানা মাহফুজুল হক সাংবাদিকদের বলেন, সারাদেশের সব শ্রেণির আলেমরা এ বৈঠকে অংশ নিয়েছেন। সবার মতামতের ভিত্তিতে ৫টি প্রস্তাব গৃহীত হয়েছে। সেগুলো স্মারকলিপি আকারে প্রধানমন্ত্রীর কাছে প্রেরণ করা হবে। একইসঙ্গে একটি প্রতিনিধি দল প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাতের উদ্যোগ নেওয়া হবে।

জামিয়াতুস সুন্নাহ শিবচর, মাদারীপুর এর মুহতামিম মাওলানা নেয়ামাতুল্লাহ আল ফরীদি ও জামিয়া কাসেমিয়া ময়মনসিংহ এর মুহতামিম মাওলানা নূর আহমদ কাসেম এর যৌথ পরিচালনায় আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরীর প্রতিনিধি মুফতি জসীমুদ্দীন, আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমীর প্রতিনিধি মাওলানা নাজমুল হাসান, মুফতি মুহাম্মদ ওয়াক্কাস, আল্লামা আব্দুল হালীম বোখারীর প্রতিনিধি মাওলানা আবু তাহের নদভী, মুফতি রুহুল আমীন, আল্লামা নুরুল ইসলাম জিহাদি আল্লামা আব্দুল হামিদ (পীর সাহেব মধুপুর), আল্লামা আব্দুল কুদ্দুস (ফরিদাবাদ), আল্লামা আতাউল্লাহ হাফেজ্জী, মুফতি মনসুরুল হক, আল্লামা সাজিদুর রহমান (বি-বাড়ীয়া), মাওলানা আব্দুল মতিন বিন হুসাইন (পীর সাহেব ঢালকানগর) মাওলানা মুসলেহ উদ্দীন রাজু,

মুফতি সৈয়দ ফয়জুল করীম, মাওলানা মাহফুজুল হক, মাওলানা উবায়দুর রহমান খান নদভী, মুফতি আরশাদ রহমানী, মুফতি মুহাম্মাদ আলী, মুফতি মিযানুর রহমান সাঈদ, মুফতি জাফর আহমদ (পীর সাহেব ঢালকানগর), প্রিন্সিপাল মিজানুর রহমান চৌধুরী, মাওলানা মোবারকুল্লাহ, আল্লামা আব্দুর রহমান হাফেজ্জী, মাওলানা মামুনুল হক, মুফতি শফিকুল ইসলাম, (সাইনবোর্ড), মাওলানা ইয়াহইয়া মাহমুদ (বনশ্রী), ড. মুশতাক আহমদ, (তেজগাঁও), মাওলানা হিফজুর রহমান (রাহমানিয়া), মাওলানা উবাইদুর রহমান মাহবুব, (বরিশাল), মাওলানা রশিদুর রহমান ফারুক (পীর সাহেব বরুণা), মাওলানা ফজলুর রহমান (বগুড়া) মাওলানা আবুল হাসানাত আমিনী (লালবাগ), মাওলানা শাব্বির আহমদ রশিদ, মাওলানা বাহাউদ্দীন জাকারিয়া, মাওলানা আব্দুল বাছির, আল্লামা মুহিব্বুল হক গাছবাড়ী, মাওলানা আব্দুল্লাহ হাসান, (পীর সাহেব বাহাদুরপুর), মুফতি কেফায়াতুল্লাহ আযহারী,

মুফতি আহমাদ আলী মোমেনশাহী, মাওলানা নুর আহমদ কাসেম (মোমেনশাহী), মাওলানা নেয়ামাতুল্লাহ আল ফরিদী, মাওলানা খুবাইব (জিরি), মাওলানা হাফিজুর রহমান সিদ্দিক, মাওলানা হাসান জামিল, মাওলানা খালেদ সাইফুল্লাহ আইয়ুবী, মাওলানা মুহিব্বুর রহমান খান, মুফতি লুৎফুর রহমান ফরায়েজী, মুফতি গোলাম রহমান, (খুলনা), মাওলানা আব্দুল আউয়াল, (নারায়নগঞ্জ), মাওলানা আশরাফ আলী (নরসিংদী), মাওলানা শওকত হোসেন সরকার (নরসিংদী), মাওলানা মুনাওয়ার হুসাইন (ধানমন্ডি) প্রমূখ।

ফেসবুকে লাইক দিন