ভারতে পা রাখলেন পাকিস্তানের হাতে আটক পাইলট আভিনন্দন

ইমান২৪.কম: আটক হয়ে তিন দিন পাকিস্তানে থাকার পর মুক্তি পেয়ে দেশে ফিরলেন ভারতীয় বিমান বাহিনীর উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমান। শুক্রবার বিকালে ওয়াঘা সীমান্তে তাকে নিয়ে আসা হয়।

কড়া নিরাপত্তার মধ্যে দিয়ে পাকিস্তান সেনাবাহিনী তাকে নিয়ে আসে। ইসলামাবাদ থেকে সড়কপথে তাকে নিয়ে আসা হয়। যেখানে ভারতের পক্ষ থেকে অভিনন্দনকে বরণ করা হয় লাহোর থেকে সেই ওয়াঘা সীমান্তের দূরত্ব মাত্র ২৩ কিলোমিটার।

সীমান্তে তাকে স্বাগত জানাতে ভিড় করে হাজারো মানুষ। ফুল, মিষ্টি, ব্যানার নিয়ে অভিনন্দনকে স্বাগত জানাতে জড়ো হয়েছেন তারা। সারা ভারত এই পাইলটের ভূমিকাকে বীরোচিত মনে করছে। অভিনন্দনের বাবা এয়ার মার্শাল এস বর্তমান এবং মা শোভা বর্তমানও ছেলেকে আনতে সীমান্তে যান।

ভারতীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়, অভিনন্দনের শারীরিক অবস্থা ভালো আছে। তাকে অমৃতস্যরে ভারতীয় বিমান বাহিনীর ক্যাম্পে নিয়ে যাওয়া হয়। এরপর বিশেষ বিমানে করে নিয়ে যাওয়া হবে দিল্লিতে।

ভারতের সংবাদমাধ্যম নিউজ এইটিন জানিয়েছে, ভারতীয় সময় বিকাল ৪টার পর ওয়াঘা সীমান্তে অভিনন্দনকে নিয়ে আসা হয়।এরপর পাকিস্তানের কাস্টমস বিভাগে প্রয়োজনীয় আনুষ্ঠানিকতা শেষে বিকাল ৫টা ২০ মিনিটের দিকে তিনি ভারতের মাটিতে পা রাখেন।

এর আগে বৃহস্পতিবার পাকিস্তানের পার্লামেন্টে যৌথ অধিবেশনে শান্তির বার্তা হিসেবে ওই পাইলটকে মুক্তির ঘোষণা দিয়েছিলেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। পাকিস্তানের এমন পদক্ষেপকে স্বাগত জানিয়েছে ভারতীয় সেনাবাহিনী।

এদিকে ভারতীয় পাইলটকে ছেড়ে দেওয়ার ব্যাপারে পাকিস্তানের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে জাতিসংঘ। আন্তর্জাতিক সংগঠনগুলো ইমরান খানের এমন পদক্ষেপে প্রশংসা করছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে চলছে ইমরান বন্দনা।

পাকিস্তানের পক্ষ থেকে বলা হয়, ২৬ ফেব্রুয়ারি সকালে আকাশে লড়াই করে ভারতের দুটি বিমান গুলি করে ভূপাতিত করে তারা। এর একটি পড়ে পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে, অন্যটি পড়ে ভারতীয় অংশে। যে বিমানটি পাকিস্তানের সীমানার মধ্যে ভূপাতিত হয় সেটার পাইলটকে আটক করে স্থানীয় তরুণরা। পরে পাকিস্তানের সেনাবাহিনী সেখানে গিয়ে তাকে উদ্ধার করে ক্যাম্পে নিয়ে আসে।

এই ঘটনার পর পাকিস্তানের আন্তবাহিনী জনসংযোগ অধিদপ্তর (আইএসপিআর) দুইটি ভারতীয় যুদ্ধ বিমান ভূপাতিত করার ছবি ও ভিডিও প্রকাশ করে। পাইলটের রক্তমাখা ছবি প্রকাশ হলে তা ভাইরাল হয়ে যায়। এদিকে প্রথম ভিডিওতে ওই পাইলটকে চোখ বাঁধা অবস্থায় দেখা যায়। পরবর্তীতে আরেকটি ভিডিও আপলোড করা হয়, যেখানে তাকে চোখ খোলা অবস্থায় একটি কাপে চা পান করতে দেখা যায়।

ভিডিওতে ভারতীয় পাইলট বলেন, পাকিস্তানি সেনারা আমাকে বিমান বিধ্বস্তের স্থান থেকে উদ্ধার করে নিয়ে আসে। এরপর তারা আমাকে চিকিৎসার ব্যবস্থা করে। আমি পাকিস্তানি সেনাদের ব্যবহারে মুগ্ধ। ভারতেরও উচিত এমন পথ অনুসরণ করা।

আরও পড়ুন:  জামাত-ই-ইসলামিকে নিষিদ্ধ করল ভারত সরকার

সৌদি ভার্সিটিগুলোতে কওমি সনদ গ্রহণের অনুরোধ জানিয়েছেন ধর্মপ্রতিমন্ত্রী

ইমরান খানের সমালোচক ছিলাম, এখন ভক্ত হয়ে গেলাম: ভারতীয় বিচারপতি

বাবা-মাকে নিয়ে থাকলে বাসা ভাড়া কম ৫০০, যা বললো আলোচিত বাড়ির মালিক

শত্রুদের প্রতি সদয় হওয়া, ভালো ব্যবহার করা আল্লাহর রাসূলের নির্দেশ: পাক সেনা কর্মকর্তা

ফেসবুকে লাইক দিন