ভারতের ভিএইচপি ও বজরং দল জঙ্গি সংগঠন; জমিয়ত ধর্মীয় সংগঠন: সিআইএ’র রিপোর্ট

ইমান২৪.কম: মার্কিন গোয়েন্দা সেন্ট্রাল ইনটেলিজেন্স এজেন্সি বা সিআইএ উগ্র হিন্দুত্ববাদী সংগঠন ভিএইচপি ও বজরং দলকে জঙ্গি সংগঠন বলে উল্লেখ করেছে তাদের প্রকাশিত বই ‘দি সিআইএ ওয়ার্ল্ড ফ্যাক্টবুক ২০১৮-২০১৯’ প্রকাশনে। খবর বেঙ্গল রিপোর্ট ইন্ডিয়া

যদিও রাষ্ট্রীয় স্বয়ং সেবক সংঘ বিশ্ব হিন্দু পরিষদ ও বজরং দলকে জাতীয়তাবাদী সংগঠন বলে মনে করছে। সিআইএ যে ‘ওয়ার্ল্ড ফ্যাক্টবুক’ প্রকাশ করেছে তাতে বিশ্ব হিন্দু পরিষদ ও বজরং দলকে জঙ্গি সংগঠন বলে বর্ণনা করলে, কাশ্মীরের হুরিয়াতকে বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠন বলে উল্লেখ করেছে।

‘ওয়ার্ল্ড ফ্যাক্টবুকে’ একমাত্র ভারতের সবথেকে বৃহৎ সংগঠন মাওলানা মাহমুদ মাদানী নেতৃত্বাধীন জমিয়ত উলামায়ে হিন্দকে ধর্মীয় সংগঠন বলে বর্ণনা করেছে।

উল্লেখ্য, ভারতের বৃহওম সমাজসেবামূলক অরাজনৈতিক ধর্মীয় সংগঠন জমিয়ত উলামায়ে হিন্দ। এবার জমিয়ত উলামায়ে হিন্দ শতবর্ষে পা দিতে চলেছে। তার শতবর্ষের বার্ষিক সম্মেলন হতে চলেছে বিশ্ব প্রখ্যাত দারুল উলুম দেওবন্ধে।

প্রসঙ্গত জমিয়ত উলামায়ে হিন্দ ভারতবর্ষের স্বাধীনতা আন্দোলনে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছিল। বর্তমানেও তারা দেশ ও জাতির সেবায় তারা নিয়োজিত। এসব দিক দিয়ে বিচার করে সিআইএ জমিয়ত উলামায়ে হিন্দকে সেবামূলক ধর্মীয় সংগঠন বলে উল্লেখ করেছে ‘ওয়াল্ড ফ্যাক্টবুকে’।

এছাড়া আরও উল্লেখ করা হয় জমিয়ত উলামায়ে হিন্দ ভারতর্ষের তথা উপমহাদেশের বৃহওম সংগঠন।

সিআইএ প্রকাশিত বইয়ের মানচিত্রকে নিয়ে মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থাকে দক্ষিণপন্থী হিন্দু সংগঠনগুলি সিআইএকে ভারত বিরোধী বলে আখ্যা দিয়েছে।

একটি দৈনিক পএিকার সূত্রের খবর আরএসএস সদস্য প্রবীন কুমার প্রশ্ন তুলেছেন, মাহমুদ মাদানী নেতৃত্বাধীন জমিয়ত উলামায়ে হিন্দ ধর্মীয় সংগঠন উল্লেখ করলেও উগ্র হিন্দু গোষ্ঠীগুলিকে জঙ্গি সংগঠন বলা হচ্ছে কেন?

বুদ্ধিজীবি মহলের জবাব, সিআইএ যোগ্য হিসাবেই তারা বিচার করেছে। বুদ্ধিজীবি মহলের একাংশ জমিয়ত মহাসচিব মাহমুদ মাদানী নীরবে যেভাবে দেশের সেবা করে চলেছে তার জন্য জাতীয় স্তরের সর্বচ্চ পুরস্কার দেওয়ার দাবিও তুলেছেন।

দেশের শিক্ষিত মহলের ক্ষোভ আন্তর্জাতিক স্তরের অনেক পুরস্কার পেলেও মাহমুদ মাদানীকে কেন জাতীয় স্তরের কোনো পুরস্কার এখনো দেওয়া হয়নি।

মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএ-র ‘ওয়ার্ল্ড ফ্যাক্টবুকে’ আরএসএস নেতা মোহন ভগবত ও বিশ্ব হিন্দু পরিষদের নেতা প্রবীণ তোগাড়িয়াকে সাম্প্রদায়িক, ধর্মীয় জঙ্গি সংগঠনের নেতাদের সাথে সংশ্লিষ্ট করা হয়েছে।

মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থার এমন মনোভাবের জন্য তাদের ক্ষমা চাইতে হবে বলে দাবি করছে বিশ্ব হিন্দু পরিষদ। সেই সাথে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলে সিআইএ ক্ষমা না চাইলে তারা বৃহওর আন্দোলনে নামতে পারে।

আরও পড়ুন: চার জঙ্গির মধ্যে তিনজনই মানারাত বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী!

প্রধান বিচারপতি এসকে সিনহার দশা হতে পারে ইসি মাহবুব তালুকদারের, আশঙ্কা রিজভীর

তুরস্ক একমাত্র দেশ যা মুসলিম বিশ্বের নেতৃত্ব দিতে পারে: এরদোগান

নির্বাচনের সময় দেশে থাকতে চান না সরকারের উচ্চ পর্যায়ের দুই শতাধিক কর্মকর্তা

ফেসবুকে লাইক দিন