ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় জামাই-শ্বশুরের লড়াই, শেষ পর্যন্ত যে বিজয়ী হলেন…

ইমান২৪.কম: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া পৌরসভা নির্বাচনে কাউন্সিলর পদে শ্বশুরের কাছে প্রায় দ্বিগুণ ভোটে পরাজিত হয়েছেন জামাই। রোববার সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত এ পৌরসভায় ইভিএমে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়।

নির্বাচনে পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন বাবুল সরদার ও তারই বড় মেয়ের জামাই মো. হুমায়ুন কবির। নির্বাচনে বর্তমান কাউন্সিলর বাবুল সরদার ১ হাজার ৪৩৬ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জামাই হুমায়ুন কবির পেয়েছেন ৮৪৭ ভোট।

জামাই-শ্বশুরের এই প্রতিদ্বন্দ্বিতা সব জায়গা আলোচনায় পরিণত হয়েছে। কেউ কাউকে ছাড় দিতে ছিলেন নারাজ। নির্বাচিত কাউন্সিলর শ্বশুর বয়সগত কারণে নিজের শেষ নির্বাচন বলেও ঘোষণা দিয়েছিলেন। তবু মন গলেনি মেয়ে জামাইয়ের!

‘বাবার ওসিয়ত’ তাই প্রয়াত বাবার আত্মার শান্তির জন্য হুজুরদের কথায় নির্বাচন করবেন বলে ঘোষণা দেন জামাই হুমায়ুন কবির।

শ্বশুরকে সরে দাঁড়াতে অনুরোধও জানান তিনি। পাল্টা জামাইকেও সরে দাঁড়াতে বলেন শ্বশুর। কিন্তু শেষপর্যন্ত ভোটের মাঠেই শ্বশুরের পাঞ্জাবি মার্কার কাছে জামাইয়ের মার্কা পানির বোতল হেরে গেছে।

শ্বশুর বাবুল সরদার বলেন, জামাই তো জামাই-ই। তাছাড়া ওর বাবা নেই, আমি তাকে আমার নিজের ছেলের মতো ভালোবাসি। এখনো দেখব। আমি কাল মিষ্টি নিয়ে জামাইয়ের বাড়িতে যাব। আমাদের মাঝে সম্পর্ক নষ্ট হবে না।

মেয়ে কাকে ভোট দিয়েছেন? এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, আমার মেয়ে ভোট কেন্দ্রেই আসেনি। তাই নিজের বাবা বা স্বামী কাউকেই ভোট দেয়া হয়নি মেয়ের।

ফেসবুকে লাইক দিন