বোরকা পরে তরুণের ঢাকায় প্রবেশের চেষ্টা

ইমান২৪.কম: করোনার ভয়াবহ প্রকোপ ঠেকাতে দেশব্যাপী কঠোর লকডাউন ঘোষণা করেছে সরকার। আগামী ১৪ জুলাই পর্যন্ত এ লকডাউন চলবে। লকডাউন বাস্তবায়নে রাজধানীর বিভিন্ন পয়েন্টে চেকপোস্ট বসানো হয়েছে। বিনাকারণে জনসাধারণকে রাস্তায় বের হতে দেখলেই জরিমানা করা হচ্ছে।

এর মধ্যেই নানান অজুহাত দিয়ে ঢাকায় ঢোকার চেষ্টা করছেন সাধারণ মানুষ। আজ শুক্রবার (৯ জুলাই) বোরকা ও পায়ে মোজা পরে গাবতলী দিয়ে হেঁটে রাজধানীতে প্রবেশের চেষ্টাকালে তাকে আটক করে পুলিশ।

আলম নামের ওই তরুণের ভাষ্য, লকডাউনে রাস্তায় বের হলে পুলিশ গ্রেফতার করে, সেজন্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারীবাহিনীর চোখ ফাঁকি দিতে বোরকা ও পায়ে মোজা পরে গাবতলী দিয়ে হেঁটে রাজধানীতে ঢোকার পরিকল্পনা করেছিলেন তিনি।

বোরকা পরার উদ্দেশ্য আসলেই রাজধানীতে প্রবেশ করা না-কী অন্য কোনও উদ্দেশ্য আছে তা জানতে তার দেহ তল্লাশি করে পুলিশ। এসময় তাকে জিজ্ঞাসাবাদও করা হয়। পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদে তিনি আরও জানান, সাভারের হেমায়েতপুর থেকে হেঁটেই রাজধানীতে এসেছেন তিনি, যাবেন যাত্রাবাড়ী।

তবে যাত্রাবাড়ী কার কাছে যাবেন, পরিচিত নাকি আত্মীয় সে বিষয়ে একেক সময় একেক ধরনের তথ্য দিচ্ছিলেন তিনি। এ বিষয়ে দায়িত্বরত পুলিশ সার্জেন্ট আবু সুফিয়ান বলেন, আমরা যখন চেকপোস্টে ডিউটি করছিলাম বোরকা পরা একজন পায়ে হেঁটে আমিন বাজার ব্রিজ হয়ে গাবতলী চেকপোস্ট পার হচ্ছিলেন। আমাদের সন্দেহ হলে আমরা তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করি। পরে জানতে পারি বোরকা পরা কোনো মেয়ে নয়, সে আসলে ছেলে। এ বিষয়টি নিয়ে আমরা থানা পুলিশের সাথে কথা বলছি।

গাবতলী চেকপোস্টে দায়িত্বরত ট্রাফিক সার্জেন্ট আসাদুর রহমান বলেন, বোরকা পরা ছেলেটিকে আমরা জিজ্ঞাসাবাদ করেছি। সে কোথায় যাচ্ছিল বা তার গন্তব্য কি ছিল এ বিষয়টি আমরা খতিয়ে দেখছি।

ফেসবুকে লাইক দিন