বিদেশিরা কার্যকর প্রতিশ্রুতি চায় বিএনপির কাছে

ইমান২৪.কম: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি অংশ নেবে কিনা, তা পরিষ্কারভাবে জানতে চেয়েছেন বিদেশি কূটনীতিকরা। দলটির বন্ধু ও উন্নয়ন সহযোগী রাষ্ট্রগুলো মনে করে, নির্বাচনের আগে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের কাছে বিএনপির দাবি জানানো প্রয়োজন। এরমধ্য দিয়ে শাসকদল বিএনপির অধিকাংশ প্রস্তাব মেনে নিতে পারে। ইতোমধ্যে বিএনপিসহ ৪ দলীয় জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আহ্বানের পরিপ্রেক্ষিতে সংলাপে সম্মতি জানিয়েছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। শিগগিরই আলোচনার স্থান ও সময় নির্ধারণ করবে সংশ্লিষ্ট পক্ষগুলো। সম্প্রতি বিএনপির নীতি-নির্ধারণী ফোরাম—স্থায়ী কমিটিকে লেখা এক চিঠিতে এ বিষয়ে পর্যবেক্ষণ দিয়েছে দলটির ফরেইন অ্যাফেয়ার্স কমিটি (এফএসি, বিদেশি বিষয়ক কমিটি)।

যদিও এ চিঠি স্থায়ী কমিটির একজন সদস্যকে দেওয়ার পর তা আর ফোরামের টেবিলে আলোচনায় ওঠেনি। আর এই সদস্যের মন্তব্য না পাওয়ায় তার নামটি অনুল্লেখ থাকলো। ফরেইন অ্যাফেয়ার্স কমিটি-সূত্র বলছে, গত ২১ আগস্ট এই বিশেষ চিঠিটি দেওয়া হয় স্থায়ী কমিটির একজন সদস্যের কাছে। ওই সদস্য আর ফোরামে বিষয়টি উত্থাপন করেননি। বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এ কারণে কিছুই বলতে পারলেন না। গত ২৬ অক্টোবর বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আমি এ বিষয়ে কোনও চিঠির খবর জানি না। তাই এ বিষয়ে কিছু বলতে পারবো না।’ ফরেইন অ্যাফেয়ার্স কমিটির আহ্বায়ক ইনাম আহমেদ চৌধুরী গত আড়াই মাস ধরে বিদেশে থাকায় তিনিও এ বিষয়ে কিছু বলতে পারেননি।

বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক নাগরিক ও রাজনৈতিক অধিকার চুক্তি-আইসিসিপিআর স্বাক্ষরকারী দেশ। তাই বাংলাদেশকে এই চুক্তির বাধ্যবাধকতা মেনে চলতে হবে। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে অবশ্যই ক্ষমতাসীনের দলের সামনে বিষয়টি তুলে ধরতে হবে। তিন. জাতিসংঘ, ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও যুক্তরাষ্ট্রকে অবশ্যই নজরদারি রাখতে হবে আর নির্বাচন কমিশন যাতে অবাধ, সুষ্ঠু ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন নিশ্চিত করে সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। বাংলাদেশে যেন আন্তর্জাতিক মানের নির্বাচন হয়, সেই বিষয়টি তাদের অবশ্যই নিশ্চিত করতে হবে। স্থায়ী কমিটিকে দেওয়া প্রস্তাবে ফরেইন অ্যাফেয়ার্স কমিটি মানবাধিকার বিষয়ে আন্তর্জাতিক কিছু আর্টিকেলের উপস্থাপন করেছে।

বলা হয়েছে, মানবাধিকারের চিরন্তর ঘোষণা আর্টিকেল ২১(১) অনুযায়ী, প্রত্যেক মানুষেরই সরাসরি বা মুক্তভাবে প্রতিনিধি নির্বাচনের মাধ্যমে তার দেশের সরকারে অংশ নেওয়ার সুযোগ রয়েছে। চিঠির শেষ দিকে বলা হয়, ‘বিএনপির বিদেশ বিষয়ক কমিটির সদস্য হিসেবে আমরা আমাদের বিদেশি বন্ধুদের খুব পরিষ্কার করে বলেছি যে, যদি আগামীকালই কোনও নির্বাচন হয় আর বিএনপি যদি সেই নির্বাচনে অংশ নেয়, তাহলে বিএনপি নিশ্চিতভাবে তাতে জয়লাভ করবে এবং সরকার গঠন করবে। এই বার্তাটি আমাদের দলের কাছ থেকে সার্বিকভাবে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে পৌঁছানো দরকার। আমাদের সবার জন্য একটি কৌশল দরকার।’

আরও পড়ুন: ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের কাছে ক্ষমা চাইতে মাসুদা ভাট্টিকে লিগ্যাল নোটিশ

ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে গ্রেফতারে ড. কামালের উদ্বেগ, আইনি লড়াইয়ের ঘোষণা

ফেসবুকে লাইক দিন