বাবা-মাকে নিয়ে থাকলে বাসা ভাড়া কম ৫০০, যা বললো আলোচিত বাড়ির মালিক

ইমান২৪.কম: ‘যেসব ভাড়াটিয়া তার বাবা-মাকে নিয়ে অত্র বিল্ডিংয়ে অবস্থান করবেন তাদের বাড়ি ভাড়া মাসিক ৫০০ টাকা করে কম নেয়া হবে। এই নির্দেশনা আজীবনের জন্য বলবৎ থাকবে’- এমনটাই লেখা হয়েছে রাজধানীর পশ্চিম মাটিকাটার একটি ভবনের দেয়ালে লাগানো বোর্ডে।

বর্তমান সময়ে সন্তানদের বৃদ্ধ বাবা-মা’কে ত্যাগ করার খবর যেখানে প্রায়ই শোনা যায়, সেখানে ব্যতিক্রমী এ উদ্যোগে সাড়া পড়ে গেছে ভার্চুয়াল জগতসহ বাস্তব জীবনেও।

গত সোমবার ভবনটির দেয়ালে এমন বিজ্ঞপ্তি সংবলিত একটি বোর্ড লাগান বাড়ির মালিক আবদুল জলিল দেওয়ানের একমাত্র পুত্র জহিরুল ইসলাম খোকন। পেশায় ব্যবসায়ী খোকনের এই ছবি এরপর দ্রুত ভাইরাল হয় ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে।

বাবা-মাকে নিয়ে থাকলে বাসা ভাড়া কম ৫০০, যা বললো আলোচিত বাড়ির মালিক

গতকাল বুধবার সংবাদ মাধ্যমের সাথে খোকনের কথা হলে তিনি বলেন, কোনোরকম খ্যাতি বা ভাইরাল হওয়ার উদ্দেশ্যে নয় বরং সবাই যেন পরিবার-পরিজন নিয়ে বিশেষ করে বৃদ্ধ বাবা-মা’কে নিয়ে একসঙ্গে বাস করতে উৎসাহ বোধ করেন, সেই আকাঙ্ক্ষা থেকেই এমন উদ্যোগ নেয়া।

এর পেছনে কারণ সম্পর্কে খোকন বলেন, ‘মূলত দুটি কারণে সবাইকে উদ্বুদ্ধ করতে আমি এমনটা করেছি। প্রথমত, একটি অভিজ্ঞতা থেকে। আর দ্বিতীয়টি, আমার সহধর্মিণী জিনাত পারভিন রূপার উৎসাহে। সে (খোকনের স্ত্রী) একজন আইনজীবী। সারাদিন আদালতের কাজ করেও সে আমাদের পরিবারটিকে সামলে রাখে।

প্রায় ১৩ বছরের সাংসারিক জীবনের কথা উল্লেখ করে খোকন বলেন, আমার বাবা-মা’কে কেন্দ্র করে কোনো পারিবারিক কলহের সৃষ্টি হয়নি আমাদের মধ্যে। অথচ অনেক সময়েই আমরা দেখি যে, ঘরের বউ-শাশুড়ির মধ্যে অনেক ধরনের সমস্যা হয়।’

অভিজ্ঞতার কথা জানতে চাইলে খোকন বলেন, ‘আমাদের পাশের একটি বাসায় থাকা এক ভাইয়ের বাবা-মা গ্রাম থেকে ঢাকায় আসেন চিকিৎসার জন্য। কিন্তু বাবা-মায়ের আসাকে কেন্দ্র করে তাদের পরিবারে সমস্যা তৈরি হয়। অবস্থা এমন হয় যে, ওই ভাই ওনার বাবা-মা’কে চিকিৎসা না করিয়েই আবার গ্রামে ফেরত রেখে আসেন।

এসব অভিজ্ঞতার পাশাপাশি অভিজ্ঞতার বিপরীতে আমার পরিবারের ইতিবাচক দৃষ্টান্ত; এসব মিলিয়ে আমার আশপাশে অন্তত যারা আছেন তাদেরকে সচেতন করতেই আমার এই ছোট উদ্যোগ।’

ভবনটিতে সরেজমিন ঘুড়ে দেখা যায়, দুটি ভবনে একান্নবর্তী সংসার নিয়ে খোকনের পরিবার। সেখানে ১৭টি ইউনিটের মালিকানায় থাকা খোকনের ভাড়াটিয়াদের মধ্যে দুটি পরিবার বাবা-মা নিয়ে থাকেন। একটি ফ্ল্যাটে বাবা-মা, স্ত্রী ও মেয়েকে নিয়ে থাকেন জহিরুল ইসলাম খোকন।

একান্নবর্তী পরিবারের সুবিধা বর্ণনা করতে গিয়ে খোকন বলেন, ‘দেখেন, আমি একজন ব্যবসায়ী আর আমার স্ত্রী সারাদিন কোর্টে থাকেন। তাই বলতে গেলে আমরা দুইজন সবসময় ব্যস্তই থাকি। আমাদের বাবা-মা যে আমাদের কাছে থাকেন এতে তো আমাদের সন্তানও সঙ্গ পায়। খেলার সঙ্গী হয়, স্কুলে আসা যাওয়া নিয়ে কোনো দুশ্চিন্তা নেই।

যদি আমার মেয়ের দাদা বা দাদি না থাকত, তাহলে তো মেয়েকে গৃহকর্মীর কাছে রেখে আসতে হতো। আজ আমি যেমন আমার বাবা-মায়ের দেখভাল করছি; তা দেখে আমাদের মেয়েও ভবিষ্যতে আমাদের দেখভাল করার উৎসাহ পাবে। বাবা-মা আল্লাহর দেয়া রহমত। যার নেই তিনিই বোঝেন।’

এদিকে খোকনের এই উদ্যোগ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আসার পর দ্রুত ভাইরাল হয়ে যায়। অনেকেই ইন্টারনেটে, ফোনে বা সরাসরি যোগাযোগ করে সাধুবাদ জানিয়েছেন খোকনকে।

সবার প্রতিক্রিয়ায় মুগ্ধ হয়ে খোকন বলেন, ‘আসলে আমরা সবাই আমাদের বাবা-মা’কে ভালোবাসি। নইলে সবাই যেভাবে আমাকে প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন তা কেউ দেখাত না। হয়তো পারিপার্শ্বিকতার কারণে আমাদেরকে অনেক কিছু করতে হয়। কিন্তু আবেগটা সবার মধ্যেই আছে। আমার উদ্যোগ হয়তো সবার সেই আবেগকেই স্পর্শ করেছে।’

আরও পড়ুন:  একটি চিরকুট যেভাবে পাল্টে দিল মোদির সব হিসাব নিকাশ

পাকিস্তানকে অকুণ্ঠভাবে সমর্থন দেয়ার ঘোষনা দিল তুরস্ক

ভোটার না আসার দায় ইসির নয়, রাজনৈতিক দলগুলোর: সিইসি

ভারতীয় ২ যুদ্ধবিমান ভূপাতিত করলো পাকিস্তান, পাইলট আটক (ভিডিও)

পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর ভারি মর্টার শেলে দুই ভারতীয় নিহত

পাকিস্তানের সঙ্গে উত্তেজনাকর পরিস্থিতি আর বাড়াতে চায় না ভারত

ফেসবুকে লাইক দিন