বাংলাদেশে কাদিয়ানিদের সকল কার্যক্রম বন্ধের দাবি : হেফাজতে ইসলাম

ইমান২৪.কম:পঞ্চগড়ের কথিত কাদিয়ানি ইজতেমা ইজতেমা বন্ধসহ বাংলাদেশে কাদিয়ানিদের সকল কার্যক্রম বন্ধের দাবি জানিয়েছেন হেফাজতে ইসলামের আমির আল্লামা আহমদ শফী। আজ হেফাজতে ইসলাম আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এই দাবি জানান। একই সংবাদ সম্মেলনে গতকাল রাতে তৌহিদি জনতার উপর হামলাকারী পুলিশ ও কাদিয়ানিদের বিচার দাবি করেছেন আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী।

আজ সকাল ১১টায় চট্টগ্রামের হাটহাজারী মাদরাসায় অবস্থিত আল্লামা আহমদ শফীর ব্যক্তিগত কার্যালয়ে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে আল্লামা আহমদ শফী উপস্থিত থাকলেও তারপক্ষে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন তার ছেলে ও হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক মাওলানা আনাস মাদানী।

লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, ‘আহমদিয়া মুসলিম জামাত’ তথা কাদিয়ানী সম্প্রদায় ইহুদি-খ্রিস্টানের এজেন্ডা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে ইসলামের নাম ভাঙ্গিয়ে ইসলামবিরোধী ষড়যন্ত্র ও মুসলমানদের ঈমান হরণের সুদূর প্রসারী পরিকল্পনা নিয়ে দেশে দীর্ঘকাল যাবত অপতৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে।

তাই কাদিয়ানী সম্প্রদায়ের পরিচিতি, ধর্মীয় মতবাদ, তাদের সম্পর্কে ইসলামী শরীআর দৃষ্টিভঙ্গি ও মুসলমানদের করণীয় সম্পর্কে কিছু কথা আপনাদের মাধ্যমে দেশ, জনগণ ও সরকারকে অবহিত করতে চাই। এরপর কাদিয়ানিদের অতীত ইতিহাস ও বিভ্রান্তিসমূহ তুলে ধরে বাংলাদেশে কাদিয়ানিদের অমুসলিম ঘোষণার দাবি জানানো হয়। লিখিত বক্তব্য পাঠ শেষে হেফাজতে ইসলামের মহাসচিব আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন।

এ সময় তিনি বলেন, খতমে নবুওয়াতের পক্ষে আন্দোলনকারী স্থানীয় তৌহিদী জনতার উপর গত রাত পুলিশ ও কাদিয়ানীদের দ্বিমুখী হামলার ঘটনা ন্যাক্কারজনক ৷ আমরা এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই ৷এ সময় সরকারের প্রতি দাবি জানিয়ে আল্লামা বাবুনগরী বলেন,তৌহিদী জনতার উপর হামলার সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে দোষীদের গ্রেফতার করতে হবে এবং কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে।

সাথে সাথে হতাহতদের সুচিৎসার ব্যবস্থা সহ আন্দোলনকারীদের হামলা-মামলা ও ভয় ভীতি প্রদর্শন বন্ধ করতে হবে৷ হেফাজতে ইসলামের সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আজিজুল হক ইসলামাবাদীর সঞ্চালনায় সাংবাদিক সম্মেলনে আরও অংশগ্রহণ করেন মাওলানা নোমান ফয়েজি, মাওলানা লোকমান, মাওলানা মইনুদ্দীন রুহী, মাওলানা মীর ইদরিস, হাটহাজারী উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা নাসিরুদ্দীন প্রমুখ।

আরও পড়ুন: গরুর ঋণ কোনো দিন শোধ করতে পারব না: নরেন্দ্র মোদি

বাংলাদেশের পদ্মার মা ইলিশ সরিয়ে নিতে ভারতের নতুন 

ফেসবুকে লাইক দিন