বাংলাদেশের নির্বাচন অবশ্যই সঠিক হয়নি: জাতিসংঘ মহাসচিব

ইমান২৪.কম: বাংলাদেশের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সঠিক হয়নি, এ বিষয়টা এখন স্পষ্ট। বাংলাদেশের সকল রাজনৈতিক পক্ষকে আমরা বলবো তারা যেনো এ নিয়ে কার্যকর সংলাপের মধ্য দিয়ে সমাধানের উপায় বের করে। বাংলাদেশের রাজনৈতিক ভবিষ্যতের স্বার্থে এ বিষয়ে যত দ্রুত সম্ভব ইতিবাচক হতে হবে।

শুক্রবার (১৮জানুয়ারি) জাতিসংঘ সদর দফতরে নিয়মিত ব্রিফিংয়ে বাংলাদেশী অনলাইন জাস্ট নিউজ সম্পাদক মুশফিকুল ফজল আনসারীর এক প্রশ্নের জবাবে মহাসচিব অ্যান্টোনিও গুতেরাস একথা বলেন।

জাতিসংঘ মহাসচিবের মুখপাত্র স্টিফেন ডুজারিক সাধারণত এ ব্রিফিংগুলো দেন। কিন্তু শুক্রবার মহাসচিব গুতেরাস নিজেই ব্রিফিংয়ে অংশ নেন। স্টিফেন ডুজারিকও এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

জাতিসংঘ মহাসচিবকে করা পুরো প্রশ্নটি ছিল, মি: মহাসচিব, আপনাকে ধন্যবাদ। আপনি জানেন যে, গত ৩০ ডিসেম্বর বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত নির্বাচন ছিলো ভোট, কারচুপি, ভোটারদের হুমকি আর বিরোধী দলের প্রার্থী ও সমর্থকদের উপর উপর্যপুরি আক্রমণে পরিপূর্ণ। বিরোধীদলগুলো ইতোমধ্যে নির্বাচনী ফলাফল প্রত্যাখ্যান করেছে। ক্ষমতাসীন সরকার যুক্তরাষ্ট্রের স্টেট ডিপার্টমেন্টের আয়োজনে ১৭ সংস্থার সমন্বয়ে নির্বাচনী পর্যবেক্ষকদেরও দেশটিতে যাবার সুযোগ দেয়নি। এমন বাস্তবতায় আপনার সার্বিক মূল্যায়ন কী? আপনি কী ঘটনা সমুহ তদন্তে কোনো দূত বা প্রতিনিধি প্রেরণের প্রয়োজনীয়তা অনুভব করছেন?

জবাবে মহাসচিব বলেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সঠিক হয়নি, এটা স্পষ্ট যে নির্বাচন ত্রুটিহীন ছিল না। বাংলাদেশের সকল রাজনৈতিক পক্ষকে আমরা বলবো তারা যেনো এ নিয়ে কার্যকর সংলাপের মধ্য দিয়ে সমাধানের উপায় বের করে। বাংলাদেশের রাজনৈতিক ভবিষ্যতের স্বার্থে এ বিষয়ে যত দ্রুত সম্ভব ইতিবাচক হতে হবে।”

মহাসচিব বলেন, বাংলাদেশ জাতিসংঘের অন্যতম অংশীদার একটি দেশ। “বিশেষ করে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের কথা উল্লেখ করতে হয়। এরকম কঠিন পরিস্থিতিতেও উল্লেখযোগ্য সংখ্যক শরণার্থীদের আশ্রয় দিয়ে উদারতা দেখানোর জন্য বাংলাদেশের প্রতি আমরা খুবই কৃতজ্ঞ। বিষয়টি আমরা গুরুত্বের সঙ্গে নিচ্ছি। আমি আগেও বলেছি (সাংবাদিক জামাল খাসগির তদন্ত সংক্রান্ত অপর এক প্রশ্নের জবাবে) আমি এভাবে সরাসরি কোনো তদন্ত কার্যক্রম পরিচালনা করতে পারি না।”

উল্লেখ্য, ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিভিন্ন জেলায় সংহিসতার ঘটনা ঘটে। এতে দেশজুড়ে প্রাণ হারিয়েছেন অন্তত ১৭ জন। এর মধ্যে ১০ জন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী বলে দাবি করেছে আওয়ামী লীগ। নির্বাচনে বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে সরকার গঠন করেছে আওয়ামী লীগ। গত ৭ জানুয়ারি সোমবার বিকেলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে শপথ নেন নতুন মন্ত্রিসভার ৪৭ সদস্য। নিয়মানুযায়ী প্রথমে প্রধানমন্ত্রী এবং পরে পর্যায়ক্রমে মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী ও উপমন্ত্রীরা শপথ নেন।

আরও পড়ুন:  আ.লীগকে স্টেডিয়ামে গিয়ে মাফ চাইতে বললেন মির্জা ফখরুল

ধর্ষণের চেষ্টা; বিবস্ত্র অবস্থায় পালাতে হলো স্কুলছাত্রীকে

মুসলিম নির্যাতন বন্ধ না হলে চীন দূতাবাস ঘেরাও করা হবে: মাও. মামুনুল হক

ভারতীয় কোম্পানি নিম্নমানের ‘এ ক্যাপসুল’ কিনতে আমাদের বাধ্য করেছে : স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী

আরব আমিরাতে জ্বলন্ত ভবন থেকে শিশুকে বাঁচিয়ে প্রশংসায় ভাসছেন বাংলাদেশি ফারুক

তাবলিগ সংকট: ২২ তারিখের মধ্যে দেওবন্দ যাবেন প্রতিনিধি দল, ধর্ম মন্ত্রণালয়ের প্রজ্ঞাপন

ফেসবুকে লাইক দিন