বর্ষায় সাপের উপদ্রব, করণীয় কি?

বর্ষা আমাদের অনেকেরই প্রিয় ঋতু। কিন্তু আমাদের শহর বা গ্রামে বর্ষা সবসমযে যে আনন্দ বয়ে নিয়ে আসে তা নয়। নগরজীবনে জলাবদ্ধতায় আমরা অতিষ্ট হয়ে যাই। আবার একটু গ্রাম্য পরিবেশে পোকামাকড়, সাপ, ব্যাঙের উৎপাত শুরু হয়। এই সাপের উপদ্রবে বহুলোক প্রাণও হারায়। তাই এর হাত থেকে বাঁচতে আপনাকে সাবধান থাকতেই হবে। এজন্য মাথায় রাখুন এই বিষয়গুলো:

১. আমাদের সবসময়েই বাড়ির চারপাশ পরিষ্কার রাখা উচিৎ, বর্ষাকালে তো আরও বেশি। কারণ প্যাচপ্যাচে কাদাপানিতে আশপাশ নোংরা হয়। আর ময়লা জমলে পানি নিস্কাশন হয়না বিধায় জলাবদ্ধতা তৈরি হয়। তাই পানিতে টিকতে না পেরে সাপ তার আবাসস্থল থেকে বেরিয়ে আসে। তাই অবশ্যই পরিস্কার করুন বাড়ির আশপাশ।

২. বাড়ির আশপাশ, ঝোপঝাড় এবং ঘরের কোনো কোনো নিরাপদ স্থানে কাচের বোতলে কার্বলিক অ্যাসিড রেখে দিন। খেয়াল রাখবেন সেগুলো যেন শিশুদের নাগালের বাইরে থাকে। সাপ অ্যাসিডের গন্ধে সাধারণত পালিয়ে যায়।

৩. বাড়ির চারপাশে কোনো ডোবা-নালা বা অপরিষ্কার জলাশয় থাকলে দ্রুত সতর্ক হন। প্রয়োজনে ব্যবস্থা নিন। কেননা এসব স্থান এবং এর আশেপাশেই সাপের আবাস। বর্ষায় পানি জমলে সেই জলাশয়গুলো থেকে সাপ শুকনো স্থানে আশ্রয় নেয়, বাড়িঘরে ঢুকে পড়ে। এজন্য জলাশয়গুলো বন্ধ করুন বা পানি না জমার ব্যবস্থা নিন।

৪. কার্বলিক অ্যাসিডের সঙ্গে বাড়ির চারপাশে ডাইক্লোরো ডাইফেনাইল ট্রাইক্লোরো ইথেন‍ বা ডিডিটি, মশা মারার তেল ও ব্লিচিং পাউডার ছড়ান নিয়ম মেনে। একার পক্ষে সম্ভব না হলে আশেপাশে অনেককে নিয়ে এই কাজে নামুন।

৫. আপনার বাড়িতে যদি ইঁদুর বা ব্যাঙের উপদ্রব একটু বেশি থাকে তাহলে সাপের আনাগোনাও বেশি হবে। তাই আগে ইঁদুর আর ব্যাঙ তাড়ান। সেগুলোকে না মেরে তাড়িয়ে দিতে চেষ্টা করুন। ঘরে যাতে এইগুলো ঢুকতে না পারে সেই ব্যবস্থা করুন। এজন্য প্রতিদিন কাজ শেষে রান্নাঘর, বাথরুম ও বাড়ির অন্যান্য ঘরের নর্দমার মুখ আটকে রাখুন।

৬. ঘরবাড়ির কোথাও কোনো ফাঁকফোকর আছে কিনা দেখুন ভালো করে। কারণ এতে সহজেই সাপ আশ্রয় নিতে আসতে পারবে। সেগুলো আগে বন্ধ করে ফেরুন। এছাড়া বাড়ির চারপাশে সালফার পাউডার ছড়ান। এর গন্ধেও সাপ বাড়ির ভিতরে ঢুকতে পারবে না।

ফেসবুকে লাইক দিন