অবশেষে হাফেজ হলো মার্কিন বিমান হামলায় চোখ হারানো সেই আফগান বালক

ইমান২৪.কম: ২০১৮ সা’লের ৩ এপ্রিল আফগানিস্তানের কু’ন্দুজ এলাকায় একটি হেফজ মাদরাসায় লক্ষ করে চালানো বর্বোরচিত মার্কিন বিমান হামলায় দু চোখ হারিয়ে অন্ধ হয়ে যাওয়া আফগান বালক বায়ানুল্লাহ মাতিউল্লাহ তিন বছর পর এসে পবিত্র কুরআনের হেফজ সম্পন্ন করেছেন।

তালিবান নেতাকে লক্ষ করে চালানো এই ন্যাক্কা’রজনক বিমান হামলায় ৭০ জনের বেশি মানুষ মারা গেছে তখন। যার মধ্যে বেশিরভাগই ছিলো নিস্পাপ তরুণ-বালক এবং তারা বেশিরভাগই পবিত্র কুরআনের হিফজ সম্পন্ন করতেছিলেন।

বর্বর মার্কিন বাহিরীর অভিযোগ ছিলো – এ মাদরাসায় তা লেবান নেতারা বৈঠক করছে। এবং তারা তালেবান নেতাদের হত্যা করার জন্যই এ হামলা চালিয়েছেন।

হামলা বিষয়ে আল জাজিরার এক রিপোর্ট থেকে জানা যায় – ২০১৮ সালের ৩ এপ্রিল সোমবার গভীর রাতে কুন্দুজ প্রদেশের দস্ত-এ-আরচি জেলার একটি মাদরাসায় বিমান হামলা চালিয়েছিলো মার্কিন নেতৃত্বাধীন ন্যাটো বাহিনী।

যার ফলে একজন শীর্ষ তালেবান কমান্ডারসহ কমপক্ষে ৭০ জন শহীদ হয়েছিলেন। তবে প্রত্যক্ষদর্শী অনেকে জানিয়েছেন – সেখানে প্রায় ১০০ এর বেশি মানুষ মারা গেছেন এবং প্রায় ১৫০ জন আহত হয়েছেন।

এবং যা নিয়ে বিশ্বব্যাপী সমালোচনাও হয়েছিলো অনেক। এই হামলায় আহত হয়ে দু চোখ হারানো কুন্দুজের তরুণ আফগান ছেলে বায়ানুল্লাহ মাতিউল্লাহ গত পরশু (১৮ জুন) পবিত্র কুরআনের হেফজ সম্পন্ন করেছেন।

দু চোখ ছাড়াই এখন সে একজন অন্ধ হাফেজ। অপরদিকে আমেরিকান নেতৃত্বাধীন ন্যাটো বাহিনী তালেবানের সাথে শান্তি চুক্তি করেছে এবং আফগানিস্তান ছেড়ে যাওয়ার ব্যাপারে সার্বিক সম্মতি দিয়েছে। যা দীর্ঘ ১৯ বছরের আফগান যুদ্ধের মধ্য দিয়ে তালেবানের বিশ্ব বিজয়-এর সবচেয়ে বড় উদাহরণ।

ফেসবুকে লাইক দিন