পুলিশকে জনগণ গুণ্ডা-মাস্তানের ভূমিকায় দেখতে চায় না: মাওলানা ইসলামাবাদী

ইমান২৪.কম: কুষ্টিয়ার এসপি এস এম তানভীর আরাফাত কর্তৃক তথাকথিত মৌলবাদের ধুয়া তুলে ‌হাত ভেঙে দেওয়ার হুমকিকে ‘সরকারি পোশাকে গণবিরোধী মাস্তানি’ বলে অভিহিত করে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আজিজুল হক ইসলামাবাদী।

আজ সংবাদমাধ্যমে প্রদত্ত এক বিবৃতিতে ইসলামাবাদী বলেন, কুষ্টিয়ার এসপি আরাফাতের বক্তব্যে বুঝা যায় প্রশাসনে নিয়োগপ্রক্রিয়ায় কী পরিমাণে দলীয়করণ ঘটেছে।

পুলিশকে আমরা কখনোই গুণ্ডা-মাস্তানের ভূমিকায় দেখতে চাই না। কোনো দলের রাজনৈতিক চাকর হিসেবে বক্তব্য দেয়ার অধিকার পুলিশের নেই। বরং পুলিশ হলো প্রজাতন্ত্রের কর্মচারী বা জনগণের সেবক।

জনগণের নিরাপত্তা ও আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় তারা নিয়োজিত। বিচার করা বা শাস্তি দেওয়া পুলিশের দায়িত্ব নয়। পুলিশের দায়িত্ব অপরাধ ঠেকানো এবং অপরাধীদের গ্রেপ্তার করে আদালতে বিচারপ্রক্রিয়ায় পাঠানো। আর বিচার করবে আদালত।

কিন্তু পুলিশ কোনো অপরাধীর হাত ভেঙে দিতে পারে না, কিংবা কোনো অপরাধীকে বিনাবিচারে জেল খাটাতেও পারে না। সরকারের কাছে আমরা অবিলম্বে উক্ত এসপিকে বরখাস্ত করার আহ্বান জানাই।

তিনি আরো বলেন, পত্রিকার খবরমতে বাঘা যতীনের ভাস্কর্য ভাঙার অভিযোগে গ্রেপ্তার হয়েছে যুবলীগের এক নেতা এবং তার তিন সহযোগী। তাহলে আমার প্রশ্ন, কুষ্টিয়ার এসপি হাত ভাঙার হুমকি দিলেন কাদেরকে?!

এছাড়া প্রথমআলোতে ২৪ ডিসম্বেরের এক রিপোর্টে এসেছে, যুবলীগের নেতাসহ তিনজনকে রিমান্ডে নিতে পারছে না পুলিশ। ফলে আমরা মনে করি, ভাস্কর্য ভাঙার মতো এ ধরনের স্যাবোটাজ ঘটিয়ে আলেম-ওলামার ওপর দায় চাপিয়ে রাজনৈতিক ফায়দা লুটার চেষ্টা চলছে।

সেইসাথে মৌলবাদ ও ধর্মব্যবসার জিগির তুলে নবীর উত্তরসূরী আলেম-সমাজকে ছোট করার সংঘবদ্ধ প্রপাগান্ডা চলছে, যার পরিণতি কখনোই ভালো হবে না। যতই ক্ষমতা থাকুক, আল্লাহর গজব আসলে দুনিয়ার কোনো ক্ষমতা দিয়েই তা ঠেকানো যাবে না।

ফেসবুকে লাইক দিন