পাবনায় ৭ম শ্রেণির ছাত্রীকে তিন বন্ধু মিলে ধর্ষণ

ইমান২৪.কম: পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলার লক্ষ্মীকুন্ডা ইউনিয়নে এক স্কুলছাত্রী ধর্ষণের শিকার হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ রোববার রাতে অভিযান চালিয়ে ধর্ষক তুষারকে (২০) গ্রেপ্তার করেছে।

মামলার এজাহারে জানা গেছে, ধর্ষিতা উপজেলার একটি বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণির ছাত্রী। স্কুলে যাওয়ার সময় একই এলাকার বাদশা প্রামানিকের ছেলে তুষার, তার বন্ধু রনি (১৯) ও শাকিল (২১) তাকে উত্ত্যক্ত করতো।

বিষয়টি ওই ছাত্রীর অভিভাবকরা তুষার ও তার অপর দুই বন্ধুর অভিভাবকদের জানায়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে গত শনিবার রাতে তুষার ও তার বন্ধুরা ওই ছাত্রীর শোয়ার ঘরের বেড়া ভেঙে ঘরে প্রবেশ করে।

পরে অস্ত্রের মুখে ভয় দেখিয়ে ওই ছাত্রীর মুখে গামছা বেঁধে বাড়ির পাশে আমিন উদ্দিন বিশ্বাসের আম বাগানে নিয়ে ধর্ষণ করে ফেলে রেখে যায়। এ ঘটনায় ধর্ষণের শিকার ওই ছাত্রীর চাচা বাদী হয়ে মামলা করেছেন।

পরে রোববার সারাদিন বিষয়টি ধামাচাপা দেয়ার জন্য তুষার, রনি ও শাকিলের পরিবারের পক্ষ থেকে প্রভাব খাটানো হয়।

ঈশ্বরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বাহাউদ্দিন ফারুকী ধর্ষণের ঘটনাটি নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় ধর্ষিতার চাচা বাদী হয়ে তুষার, রনি ও শাকিলের নামে থানায় ধর্ষণ মামলা করেছেন। পুলিশ অভিযান চালিয়ে প্রধান আসামি তুষারকে গ্রেপ্তার করেছে।

ধর্ষিতাকে প্রাথমিক ডাক্তারি পরীক্ষা করা হয়েছে। অপর দুই আসামিকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা অব্যাহত আছে।

আরও পড়ুন:  থানার দেয়ালে আ.লীগ নেতার মাথা থেঁতলে দিল সন্ত্রাসীরা

‘ধর্ষণ ও নারী নির্যাতন বৃদ্ধির পেছনে ধর্মহীন শিক্ষা ও অশ্লীল সংস্কৃতি দায়ী’

১ হাজার ৯২ দিন পর অবশেষে মুক্তি পেলেন নিরীহ জাহালম

শিশুদের দিয়ে জোরপূর্বক পতিতাবৃত্তি, ভুয়া স্ত্রীসহ পুলিশের এসআই আটক

‘স্যার, আমি জাহালম, সালেক না’ : ৩৩ মামলায় ‘ভুল’ আসামি ৩ বছর ধরে জেলে

এখন থেকেপুলিশের বিরুদ্ধেও অভিযোগ করা যাবে সরাসরি, খোলা হয়েছে কমপ্লেইন সেল

ফেসবুকে লাইক দিন