পাকিস্তান থেকে ভারতে হামলার ছক আঁকছে ইসলামিক সংগঠনগুলি, প্রকাশ্যে জেহাদি ভিডিও প্রকাশ

ইমান২৪.কম: পাকিস্তানের জমি থেকে ভারতের বিরুদ্ধে জেহাদ ঘোষণা করেছে ইসলামিক সংগঠনগুলি। সম্প্রতি পাক-অধিকৃত কাশ্মীরের রাজধানী মুজফ্ফরবাদ থেকে একটি ভিডিও প্রকাশ করেছে মুজাহিদরা। ভারতে নাশকতা চালাতে মুসলিম ‘ধর্মযোদ্ধা’দের আহ্বান জানানো হয়েছে।

গোয়েন্দা সূত্রে খবর, মুজাহিদ নেতা সৈয়দ সালাউদ্দিনের নেতৃত্বে হিজবুল মুজাহিদিন এবং ইউনাইটেড জিহাদ কাউন্সিলের মতো সংগঠনগুলিকে ভারতে হামলা চালাতে পাক সরকার নতুন করে মদত দিচ্ছে। সংবিধানের ৩৭০ এবং ৩৫এ ধারা তুলে দিয়ে জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা প্রত্যাহার করে নেওয়ার পর এবার ভারতের বিরুদ্ধে নতুন করে হামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে পাক জেহাদিরা।

গত বৃহস্পতিবারই পাক-অধিকৃত কাশ্মীরের মুজফফরাবাদের প্রেসক্লাবের সামনে মিছিল করে হিজবুল মুজাহিদিনের খালিদ সইফুল্লা এবং নইব আমিরের মতো মুজাহিদ নেতারা। সেখানে সরাসরি জিহাদের ডাক দেওয়া হয়। ভারতের বিরুদ্ধে হামলার হুঁশিয়ারি দেওয়া একটি ভিডিও প্রকাশ করা হয়।

মুজাহিদদের আর্থিক মদত দেওয়ার জন্য ইতিমধ্যেই ফিনান্সিয়াল অ্যাকশন টাস্ক ফোর্সের গ্রে তালিকায় রয়েছে পাকিস্তান। এবার যদি ওই দেশ নিজের অবস্থান না বদলায় তাহলে কালো তালিকাভুক্ত করা হতে পারে ইসলামাবাদকে।

সূত্র: ইত্তেফাক

আরো পড়ুন: পরমাণু অ*স্ত্র ব্যবহারের হুঁশিয়ারি দিল ভারত

যুদ্ধ পরিস্থিতি দেখা দিলে, শত্রুপক্ষের বিরুদ্ধে ভারত কখনও প্রথমে পরমাণু অ*স্ত্র ব্যবহার করবে না এমন একটি নীতি রয়েছে। এবার সেই নীতিতে বদল ঘটাতে চলেছে নরেন্দ্র মোদী সরকার। শুক্রবার এমনই ইঙ্গিত দিলেন দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিংহ।

ভারতের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারী বাজপেয়ীর স্মরণে রাজস্থানের পোখরানে আয়োজিত একটি অনুষ্ঠানে এ ইঙ্গিত দেন তিনি। সেখানে তিনি বলেন, ‘ভারতকে পরমাণু শক্তিধর রাষ্ট্রে পরিণত করতে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ ছিলেন অটলজি। তবে পরমাণু অস্ত্রের প্রথম ব্যবহার আমরা করব না, এই নীতিতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ ছিলেন তিনি।

এখন পর্যন্ত সেই নীতি মেনেই চলছে ভারত। তবে ভবিষ্যতে পরিস্থিতির উপর নির্ভর করে পরমাণু অস্ত্র প্রয়োগ করবে ভারত।’

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়, জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিলের পর পাকিস্তান ও ভারতের রাজনৈতিক সম্পর্কে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। ফলে রাজনাথের এই মন্তব্যকে অনেকেই পাকিস্তানের প্রতি হুঁশিয়ারি হিসেবেই দেখছেন।

iman24/t/h

ফেসবুকে লাইক দিন