‘নিয়োগ দেওয়ার ব্যাপারে ধর্মীয় মূল্যবোধে আঘাতের এখতেয়ার কারও নেই’

ইমান২৪.কম: শুধুমাত্র দাড়ি রাখার কারণে বাংলাদেশের জনপ্রিয় রিটেইল ব্র্যান্ড সিলেটের আড়ং কর্তৃপক্ষ এক যুবককে চাকরি দেয়নি। ফেসবুক লাইভে এসে এমন অভিযোগ তোলার পর সোশ্যাল মিডিয়ায় আড়ং নিয়ে সমালোচনা শুরু হয়েছে।

এবার এ বিষয়ে নিজের মতামত জানিয়েছেন জনপ্রিয় বক্তা মিজানুর রহমান আজাহারি। পোস্টটি হুবহু তলে দেওয়া হল-

দাড়ি পুরুষের শোভা, পৌরুষত্ব ও ব্যক্তিত্বের পূর্ণতার প্রতীক। মুসলিম জাতি সত্তার অন্যতম পরিচায়ক ও নিদর্শন। তাই, এ পৃথিবীর সকল নবী-রাসুল দাড়ি রেখেছেন। রাসুলুল্লাহ (ﷺ‬) দাড়ি রাখতে মুসলিম পুরুষদের আদেশ দিয়েছেন। আল্লাহ তা’আলা মানুষের সৃষ্টিগত এই শোভা ও সৌন্দর্যকে পরিবর্তন কিংবা বিকৃত সাধন করতেও নিষেধ করেছেন।

কোন প্রতিষ্ঠান তার ইমপ্লোয়ি নিয়োগ দেয়ার ক্ষেত্রে, কাকে নিয়োগ দিবে আর কাকে দিবে না— সে ব্যাপারে পূর্ণ অধিকার তারা রাখে। কিন্তু ইসলামি সংস্কৃতি ও ধর্মীয় মূল্যবোধে আঘাত দেয়ার এখতেয়ার রাখে না।

ইসলামি লাইফস্টাইলে অভ্যস্ত বিয়ার্ডেড যুবকদের আপনার প্রতিষ্ঠানে রিক্রুট করবেন না, আর ইসলামের ধর্মীয় উৎসবে ঈদ উপলক্ষে পাঞ্জাবি, পায়জামা এবং কটি বিক্রি করে শত শত কোটি টাকার বিজনেস করবেন! ব্যাপারটা কেমন দ্বি-মূখী হয়ে গেলো না?

আলহামদুলিল্লাহ। ইসলামি জীবনাচার ও মূল্যবোধ রক্ষার অনুভূতি আজো এদেশে টিকে আছে। ব্যবসা করতে চান, ব্যবসা করুন। দেশীয় ব্র্যান্ড হিসেবে আড়ং এর সুনাম দীর্ঘ দিনের। এটা ধরে রাখার চেষ্টা করুন। পলিসি রিভাইজ করুন। দেশীয় আস্থাশীল কোন ব্র্যান্ডের এরকম পলিসি সাধারণ মানুষজনও ভালোভাবে নিচ্ছে না। তাই, কারো আত্মপরিচয় ও মূল্যবোধের জায়গায় হাত না দিয়ে, আরো উদারনীতি অবলম্বনের বিনীত আহবান রাখতে চাই।

ফেসবুকে লাইক দিন