নতুন করে ’জোনে’ সাধারণ ছুটি ঘোষণা করেছে সরকার

ইমান২৪.কম: (কোভিড-১৯) অত্যধিক সংক্রমণ ঝুঁকিতে থাকা লাল (রেড) ও হলুদ (ইয়েলো) জোনে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করেছে সরকার। সোমবার (১৫ ‍জুন) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে জারি করা নির্দেশনায় এ কথা জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, লাল ও হলুদ জোনে অবস্থিত সামরিক ও অসামরিক সরকারি, আধা-সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত, আধা স্বায়ত্তশাসিত ও বেসরকারি দফতরসমূহ এবং লাল ও হলুদ অঞ্চলে বসবাসকারী বর্ণিত দফতরের কর্মকর্তারা সাধারণ ছুটির আওতায় থাকবেন। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

আরো পড়ুন>> গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র উদ্ভাবিত কিটের পর পিসিআর ল্যাবের পরীক্ষায়ও ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর করোনা নেগেটিভ এসেছে। এখন তিনি কৃত্রিম অক্সিজেন ছাড়াই আগের চেয়ে ভালো বোধ করছেন।

তার সার্বিক অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে। করোনামুক্ত হলেও তিনি নিউমোনিয়ার জটিলতায় ভুগছেন। সোমবার (১৫ জুন) বিকাল ৪টার দিকে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রর ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

ডা. জাফরুল্লাহর চিকিৎসক অধ্যাপক ডা. ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) মামুন মোস্তাফি বলেন, ‘জাফরুল্লাহ চৌধুরীর সার্বিক অবস্থা স্থিতিশীল। কৃত্রিম অক্সিজেন ছাড়াই আগের চেয়ে ভালো বোধ করছেন।

গণস্বাস্থ্য র‌্যাপিড ডট ব্লট কিটে নেগেটিভ রিপোর্ট আসার পর আরটি পিসিআর পরীক্ষায়ও ফলাফল নেগেটিভ এসেছে তার। তিনি এখন করোনামুক্ত। এখন তিনি নিউমোনিয়ার জটিলতায় ভুগছেন, তিনি হাসপাতালে কেবিনে থেকেই চিকিৎসা নিচ্ছেন।

তার স্ত্রী শিরীন হক এবং ছেলে বারীশ হাসান চৌধুরী সুস্থ আছেন। তারা বাসায় থেকেই চিকিৎসা নিচ্ছেন। আমরা সবার দোয়া চাই, যেন আল্লাহ তায়ালা তাকে এবং তার পরিবারের সদস্যদের দ্রুত সুস্থতা দান করেন।’

নিজের স্থাপিত প্রতিষ্ঠান গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতালে ডা. মামুন মোস্তাফি এবং অধ্যাপক ডা. নাজিব মোহাম্মদের সার্বক্ষণিক তত্ত্বাবধানে চিকিৎসাধীন ডা. জাফরুল্লাহ। গত ২৫ মে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন। ১৩ জুন সকালে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র উদ্ভাবিত কিটে পরীক্ষা করে তার করোনা নেগেটিভ পাওয়া গেছে।

ফেসবুকে লাইক দিন