‘ধর্ষণ ও নারী নির্যাতন বৃদ্ধির পেছনে ধর্মহীন শিক্ষা ও অশ্লীল সংস্কৃতি দায়ী’

ইমান২৪.কম: ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের নেতৃবৃন্দ বলেছেন, শিশুদের ওপর নির্যাতন বা ধর্ষণ বাড়ার পেছনে ধর্মহীন শিক্ষা ব্যবস্থা, উন্মুক্ত সংস্কৃতি ও অপরাধীদের ক্ষেত্রে বিচারহীনতার সংস্কৃতি কাজ করছে। আইন শৃঙ্খলা বাহিনী যথাযথ দায়িত্ব পালন করলে শিশু নির্যাতনের সংখ্যা আশঙ্কাজনক হারে বৃদ্ধি পেত না।

রবিবার রাজধানীর ভাটারাস্থ আসসাঈদ মিলনায়তনে ঢাকা মাহানগর উত্তরের থানা দায়িত্বশীলদের যৌথসভায় বক্তারা এ কথা বলেন।

মাওলানা শেখ ফজলে বারী মাসউদ বলেন, ২০০০ সাল থেকে নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মাল্টিসেক্টোরাল প্রকল্পের অধীনে ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টার থাকলেও তা কাজে আসছে না। যৌন নির্যাতনের ঘটনাগুলো আগের মতই ঘটে যাচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, শিশু ধর্ষন ও হত্যা রোধে আইন শৃংখলা বাহিনী ব্যর্থ। সাম্প্রতিককালে শিশু, নারী ধর্ষণ ও হত্যা আশঙ্কাজনক হারে বেড়ে গেছে। নির্যতনের শিকার হচ্ছে নারী-শিশু সকলেই। এতে অভিভাবকগণ উদ্বেগ উৎকণ্ঠার মধ্যে আছেন তাদের শিশুদের নিয়ে।

নগর সেক্রেটারী মাওলানা আরিফুল ইসলামের পরিচালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন নগর উত্তর সভাপতি প্রিন্সিপাল হাফেজ মাওলানা শেখ ফজলে বারী। আরও বক্তব্য রাখেন আলহাজ্ব আনোয়ার হোসেন, হাফেজ মাওঃ সিদ্দিকুর রহমান, মুফতী মাছউদুর রহমান, হাফেজ নিজাম উদ্দীন, প্রকৌশলী গিয়াস উদ্দীন, ডাঃ মুজিবুর রহমান, মুফতী ফরিদুল ইসলাম, হাজী আলাউদ্দীন, মাওলানা জাকারিয়া প্রমুখ।

আরও পড়ুন:  নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহারে কিছু ভুলত্রুটি ছিল: সিইসি

এ ‘মহাসমুদ্রে’ আমি কাকে ধরবো, কাকে খুঁজবো : দুদক চেয়ারম্যান

সিজার করতে গিয়ে নবজাতককে কেটে ফেললেন চিকিৎসক : আটক ৩

শিশুদের দিয়ে জোরপূর্বক পতিতাবৃত্তি, ভুয়া স্ত্রীসহ পুলিশের এসআই আটক

‘স্যার, আমি জাহালম, সালেক না’ : ৩৩ মামলায় ‘ভুল’ আসামি ৩ বছর ধরে জেলে

এখন থেকেপুলিশের বিরুদ্ধেও অভিযোগ করা যাবে সরাসরি, খোলা হয়েছে কমপ্লেইন সেল

ফেসবুকে লাইক দিন