ধর্ষকের স্বীকারোক্তি, অথচ মেডিকেল রিপোর্টে ধর্ষণের আলামত না পাওয়ায় মওদুদের বিস্ময়

ইমান২৪.কম: নোয়াখালীতে ধর্ষিতা নারীকে দেখতে গিয়ে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেছেন, কবিরহাট উপজেলায় স্বামী জেলখানায় থাকা অবস্থায় স্ত্রীকে গণধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে।

ধর্ষক জাকির হোসেন আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিও দিয়েছেন। তারপরও মেডিকেল রিপোর্টে ধর্ষণের আলামত না পাওয়ায় বিস্ময় প্রকাশ করেন তিনি।

শুক্রবার (২৫ জানুয়ারি) বেলা ১১টা ৩০ মিনিটের দিকে নোয়াখালীর কবিরহাটের ধানসিঁড়ি ইউনিয়নে ধর্ষিতা নারীকে দেখতে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে গিয়ে এসব কথা বলেন মওদুদ। এ সময় তিনি ওই নির্যাতিত নারীর সঙ্গে আলাপ করেন এবং তার শারীরিক খোঁজ খবর নেন।

এ সময় এটা মেডিকেল রিপোর্টে না, রাজনৈতিক রিপোর্ট বলে ক্ষোভ প্রকাশ করে মওদুদ আহমদ বলেন, রাজনৈতিক কারণে ডাক্তারদের প্রভাবিত করে এ ধরনের মিথ্যা রিপোর্ট দেওয়া হয়েছে।

বিএনপির এই স্থায়ী কমিটির সদস্য আরও বলেন, সুবর্ণচর ও কবিরহাটে নির্বাচনের পর দুটি ধর্ষণের ঘটনা একই সূত্রে গাঁথা। এটা তাদের (আওয়ামী লীগ) হিংস্রতারই বহিঃপ্রকাশ। দেশের প্রতিটি ধর্ষণ ঘটনার সঙ্গে সরকারি দলের নেতাকর্মীরা জড়িত। সরকারি ডাক্তাররা ভিকটিমের সঠিক রির্পোট দিচ্ছে না। যা দেশের জন্য মঙ্গলজনক নয়। এর বিচার অবশ্যই আদালতে হবে।

এ সময় তার সঙ্গে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মো. শাহজাহান, বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা জয়নুল আবদিন ফারুক, নোয়াখালী জেলা বিএনপির সভাপতি গোলাম হায়দার বিএসসি, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবদুর রহমানসহ দলীয় নেতাকর্মীরা।

আরও পড়ুন:  ঝালমুড়িওয়ালার ছুরিকাঘাতে যুবলীগ নেতা খুন

বাংলাদেশের নির্বাচন অবশ্যই সঠিক হয়নি: জাতিসংঘ মহাসচিব

ঘুষের টাকাসহ ভূমি অফিসের সার্ভেয়ার হাতেনাতে আটক

সিজার করতে গিয়ে নবজাতককে কেটে ফেললেন চিকিৎসক : আটক ৩

আগামী ১৫, ১৬ ও ১৭ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব ইজতেমা : ধর্ম মন্ত্রণালয়ে বৈঠকে সিদ্ধান্ত

ভারতীয় কোম্পানি নিম্নমানের ‘এ ক্যাপসুল’ কিনতে আমাদের বাধ্য করেছে : স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী

ফেসবুকে লাইক দিন