দীর্ঘ ১২ বছরের সাধনায় ‘খাসি’ ভাষায় কুরআনের অনুবাদ প্রকাশ

ইমান২৪.কম: গত ২ ফেব্রুয়ারি ছিলো ভারতের মেঘালয় রাজ্যের ‘খাসি’ ভাষাভাষী মুসলিমদের জন্য একটি বিশেষ দিন। কারণ, এই দিনে পবিত্র কুরআনের খাসি ভাষার অনুবাদ প্রকাশিত হয়। দীর্ঘ ১২ বছরের সাধনায় অনুবাদ কাজটি সম্পন্ন করেছেন ইস্তামুর মুমিনিন, সানাওয়ার সুল্লাই, সারতারাজ আহমদ ও কে ইসমাইল।

কোরআনের ইংরেজি অনুবাদ থেকে খাসি ভাষায় অনুবাদটি করে ‘সেং ভালাং ইসলাম’ নামের একটি প্রতিষ্ঠান।

ইসলাম ও কোরআনের বাণীর প্রচার-প্রচারণার উদ্দেশ্যে একটি আঞ্চলিক ভাষায় এ অনুবাদ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ওই প্রতিষ্ঠানের এক মুখপাত্র।

প্রাথমিকভাবে খাসি ভাষায় কোরআনের ৩ হাজার কপি ছাপানো হয়েছে। পরে এ সংখ্যা চাহিদা অনুযায়ী আরও বাড়ানো হবে বলে জানিয়েছেন অনুবাদক সংস্থাটি।

‘দীর্ঘ ১২ বছরের অধ্যাবসায় ও রিসার্চের পর ১২৫১ পৃষ্ঠার এ পাণ্ডুলিপি প্রকাশ করে অনুবাদের সম্পাদনা বোর্ড।’

অনুবাদক সংস্থা সেং ভালাং ইসলামের প্রেসিডেন্ট মোবারক লেংদুহ বলেন, ‘খাসি ভাষায় পবিত্র কোরআন অনুবাদের ফলে মেঘালয়ের ১৬ লাখের বেশি লোক অর্থসহ কোরআন বুঝতে ও পড়তে পারবে। স্থানীয়রা সহজেই কোরআনের জ্ঞানার্জন ও বিধান বাস্তবায়নে সক্ষম হবে।’

প্রসঙ্গত, ‘খাসি’ ভাষা অস্টোয়াসেটিক ভাষার অংশ। ২০০৫ সাল থেকে মেঘালয়ে এ ভাষাকে সহযোগী অফিসিয়াল ভাষা হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে।

সূত্র : দ্য শিলং টাইমস

ফেসবুকে লাইক দিন