তুরস্ক কোনো হুমকিতে মাথা নত করবে না: এরদোগান

ইমান২৪.কম: তুরস্ক কোনো হুমকিতে মাথা নত করবে না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়েব এরদোগান। তিনি বলেন, পূর্ব ভূমধ্যসাগরে তুরস্ক কোনো হুমকিতে মাথা নত করবে না। আন্তর্জাতিক আইন ও দ্বিপক্ষীয় চুক্তি থেকে উদ্ভূত তার অধিকার রক্ষা করতে থাকবে।

রোববার (৩০ আগস্ট) তুরস্কের ৯৮তম বিজয় দিবস উপলক্ষে আঙ্কারায় এক ভাষণে তিনি এসব কথা বলেন। ভূমধ্যসাগরে তেল-গ্যাস অনুসন্ধান নিয়ে তুরস্কের সঙ্গে গ্রিসের উত্তেজনা চলছে।

এরই মধ্যে আইওনিয়ান সাগরে আঞ্চলিক জলসীমা দ্বিগুণ করার ঘোষণা দিয়েছে গ্রিস। এ নিয়ে আঙ্কারার পক্ষ থেকে অ্যাথেন্সকে যুদ্ধের হুমকি দেয়া হয়েছে।

আইওনিয়ার সাগরের জলসীমা ৬ নটিক্যাল মাইল থেকে বাড়িয়ে ১২ নটিক্যাল মাইল বৃদ্ধি করা হলে এটি যুদ্ধের কারণ হবে বলে তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত কাভাসগ্ললু মন্তব্য করেন। প্রধানমন্ত্রী ক্রিয়াকোস মিতসোটাকিস বলেন, সরকার আইওনিয়ান সাগরে ইতালির মুখোমুখি গ্রিসের আঞ্চলিক জলসীমা দ্বিগুণ করার একটি বিল জমা দেওয়ার পরিকল্পনা করছে।

ভবিষ্যতে অন্যান্য সামুদ্রিক এলাকায় গ্রিস তার আঞ্চলিক জলসীমা বর্ধিত করবে। গ্রিসের একচেটিয়া এমন ঘোষণার পরেই নতুন উত্তেজনা দেখা দিয়েছে বলে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম জানিয়েছে। উল্লেখ্য, গত কয়েক বছর ধরেই সমুদ্র এলাকায় তেল ও গ্যাসের মজুত অনুসন্ধান জোরদার করেছে তুরস্ক।

২০২০ সালের ২১ আগস্ট কৃষ্ণসাগরে প্রাকৃতিক গ্যাসের বিশাল মজুতের সন্ধান পাওয়ার ঘোষণা দেয় আঙ্কারা। ওই মজুত পাওয়ার পর অনুসন্ধান কাজে আরও গতি আনে তুরস্ক।

এ নিয়ে দেশটির সঙ্গে বিরোধে জড়িয়ে পড়ে প্রতিবেশী গ্রিস। এরপর ২৪ আগস্ট এক ঘোষণায় তুরস্ক জানায়, ভূমধ্যসাগরে নিজেদের অধিকারে থাকা সমুদ্রসীমায় তাদের গবেষণা জাহাজ অরুচ রেইসের অনুসন্ধানের সময় ২৭ আগস্ট পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে।

এই অনুসন্ধানকে বেআইনি হিসেবে আখ্যায়িত করে গ্রিস। এর জেরে পাল্টাপাল্টি মহড়ার ঘোষণা দেয় তুরস্ক ও গ্রিস। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে গ্রিসের পাশে দাঁড়ায় ইউরোপীয় ইউনিয়ন। অপরদিকে তুরস্কের পক্ষে ভূমধ্যসাগরে যৌথ সামরিক মহড়া দেয় আমেরিকা।

ফেসবুকে লাইক দিন