টিসিবির পণ্যের অপেক্ষায় শত শত মানুষ, দেখা নেই গাড়ির

ইমান২৪.কম: রাজধানীর মিরপুরে রাষ্ট্রায়ত্ত বিপণন সংস্থা ট্রেডিং কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ-টিসিবির পণ্যের জন্য শত শত মানুষ দীর্ঘ লাইন দিয়ে অপেক্ষা করছেন। সকাল গড়িয়ে দুপুর হলেও এখনও দেখা নেই টিসিবি পণ্যবাহী গাড়ির। কখন গাড়ি আসবে তাও জানেন না ক্রেতারা।

দেখা গেছে, আজ মঙ্গলবার সকাল ১০টায় মিরপুর গার্লস আইডিয়াল ল্যাবরেটরি ইনস্টিটিউটের সামনে কয়েকশ নারী-পুরুষ টিসিবির পণ্যের অপেক্ষায় দাঁড়িয়ে রয়েছেন। কিন্তু দুপুর ২টা পর্যন্ত টিসিবির কোনো পণ্যকাহী ট্রাক স্পটে আসেনি।

গাড়ি না আসলেও সাশ্রয়ী মূল্যে নিত্যপণ্য কিনতে ক্রেতারা প্রখর রোদের মধ্যেই অপেক্ষা করছেন। অনেকে ছাতা মাথায় দিয়ে লাইনে সিরিয়াল দিয়ে বসে রয়েছেন। আবার অনেকে রোদের উত্তাপে অসুস্থ হয়ে পড়ছেন।

কয়েকজন ক্রেতা গণমাধ্যমকে জানান, আজ সকাল থেকে তারা টিসিবির পণ্যের জন্য বসে রয়েছেন। কেউ বলতে পারে না কখন গাড়ি আসবে। তারপরও অপেক্ষা করছেন, যদি গাড়ি আসে।

জরিনা বেগম নামে এক ক্রেতা বলেন, ‘আমরা গরিব মানুষরা এখানে পণ্য কিনতে আসি। টিসিবির লোকজন আমাদের ‘মানুষই’ মনে করেন না। গতকালও ২টা পর্যন্ত অপেক্ষা করে চলে গেছি। অথচ প্রতিদিন ১০টা থেকে পণ্য বিক্রির কথা।

তিনি বলেন, টিসিবির ওয়েবসাইটেও এ সংক্রান্ত কোনো তথ্য নেই। কারো মোবাইল নম্বরও জানা নেই যে, কখন গাড়ি আসবে তা ফোন দিয়ে জানব।

প্রসঙ্গত করোনা মহামারি পরিস্থিতিতে ভোক্তাদের জন্য সাশ্রয়ী মূল্যে ঢাকাসহ সারা দেশে তিনটি পণ্য বিক্রি শুরু করেছে রাষ্ট্রায়ত্ত বিপণন সংস্থা ট্রেডিং কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি)।

সোমবার সকাল থেকে ভ্রাম্যমাণ ট্রাকে চিনির পাশাপাশি মসুর ডাল ও সয়াবিন তেল বিক্রি করছে টিসিবি। ২৯ জুলাই (ঈদুল আজহার ছুটি ব্যতিত) পর্যন্ত এ কার্যক্রম চলবে।

টিসিবির ট্রাক থেকে প্রতি কেজি চিনি পাওয়া যাবে ৫৫ টাকায়, যা একজন ক্রেতা সর্বোচ্চ চার কেজি কিনতে পারবেন। এছাড়া প্রতি কেজি মসুর ডাল পাওয়া যাবে ৫৫ টাকায়, যা একজন ক্রেতা সর্বোচ্চ দুই কেজি কিনতে পারছেন। এছাড়াও সয়াবিন তেল ১শ টাকা লিটারে একজন ক্রেতা দুই থেকে সর্বোচ্চ ৫ লিটার নিতে পারছেন।

ফেসবুকে লাইক দিন