ঝিনাইদহে যুবককে উল্টো করে ঝুলিয়ে আ.লীগ নেতার অমানবিক নির্যাতন; ভিডিও ভাইরাল

ইমান২৪.কম: ঝিনাইদহের চুরির অভিযোগে রানা নামের এক যুবককে গাছে উল্টো করে ঝুলিয়ে নির্যাতন করা হয়েছে। নির্যাতনের একটি ভিডিও থেকে ঘটনাটি জানাজানি হয়।

অমানবিক এই ঘটনা ঘটেছে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের দুই দিন আগে ২৮ ডিসেম্বর জেলার হরিণাকুন্ডু উপজেলার শ্রীপুর গ্রামে। এ ঘটনায় তখন থানায় কোন মামলা দায়ের করা হয়নি।

রানা হরিণাকুন্ডু উপজেলার তাহেরহুদা ইউনিয়নের শ্রীপুর গ্রামের কৃষক ওমর আলী ছেলে। ঘটনার দিন স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা শাহিনুর রহমান তুহিনের নেতৃত্বে রানার উপর এ নির্যাতন চালানো হয়। নির্যাতনকারী শাহিনুর রহমান তুহিন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক।

তাহেরহুদা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মনজের আলী জানান, ভোটের দুই দিন আগে ২৮ ডিসেম্বর দুপুরে মাঠে কাজ করছিল রানা। এসময় শাহিনুর রহমান তুহিন নামের এই আওয়ামী লীগ নেতা টেলিভিশন চুরির অভিযোগে রানাকে ধরে নিয়ে আসে। এরপর গ্রামের একটি গাছে ঝুলিয়ে অমানবিকভাবে পিটিয়ে নির্যাতন করে। ঘটনার দিন আমি এলাকায় ছিলাম না।

ভিডিওতে দেখা যায় স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা শাহিনুর রহমান তুহিন কিছু যুবকের সহায়তায় রানাকে একটি কাঁঠাল গাছে উল্টো করে ঝুলিয়ে লাঠি দিয়ে মারছেন এবং টিভি চুরি করেছে কিনা স্বীকারোক্তি আদায় করছেন। এ সময় যুবকটি হাউমাও করে কাঁদছেন।

স্থানীয় জনপ্রতিনিধি আরো জানান, নির্যাতনের পর পরিবারের সদস্যরা মুমূর্ষু অবস্থায় তাকে কুষ্টিয়ার একটি হাসপাতালে ভর্তি করে।

অভিযুক্ত শাহিনুর রহমান তুহিন জানান, ভোটের ৫ দিন আগে নির্বাচনি ক্যাম্পের টিভি চুরি হয়ে যায়। এসময় আমরা জানতে পারি রানা টিভি চুরি করেছে। কিন্তু উদ্ধার না হওয়ায় আমি তাকে সামান্য মেরেছিলাম। তাকে আমি চিকিৎসাও করিয়েছিলাম। কিন্তু স্থানীয় রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ বিষয়টা ভিন্নভাবে তুলে ধরে আমাকে হেয় করার চেষ্টা করছে বলে তিনি দাবি করেন।

রানার পিতা ওমর আলী জানান, আমার ছেলে কোন চুরির সাথে জড়িত না। তাকে অন্যায় ভাবে মারা হয়েছে। আমরা এ ঘটনার সঠিক বিচার চাই।

এ ঘটনায় হরিণাকুন্ডু থানার ওসি আসাদুজ্জামান জানান, ভোটের কয়েকদিন আগে স্থানীয় আওয়াম লীগ নেতা তুহিন রানা নামের এই ব্যাক্তিকে ধরে থানায় এনেছিল। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল আওয়ামী লীগের নির্বাচনি অফিস থেকে টেলিভিশন চুরি করেছে।

সে সময় আমরা তাকে টেলিভিশন উদ্ধারের জন্য চেষ্টাও করেছিলাম কিন্তু না পেয়ে পরিবারের সদস্যদের জিম্মায় তাকে ফেরত দেওয়া হয়। এরপর কি হয়েছে আমার জানা ছিল না।

এই নির্যাতনের ভিডিওটি ফেসবুকে ভাইরাল হলে পুলিশ শুক্রবার (৪ জানুয়ারী ২০১৯) রাতে একটি মামলা রেকর্ড করে। রানার বৃদ্ধ পিতা ওমর আলী বাদী হয়ে মামলাটি করেন।

মামলা হওয়ার পর পুলিশ রাতেই নির্যাতনকারী শাহীনুর রহমান তুহিন ও ধুলিয়া গ্রামের আতিয়ার কাজীর ছেলে বাবুল কাজীকে শুক্রবার মধ্যরাতে গ্রেফতার করে।

হরিণাকুন্ডু থানা পুলিশের এসআই ও মামলার আইও গোলাম সারোয়ার জানান, এ ঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেফতারে জেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালাচ্ছি। আশা করা যায় দ্রুত সফলকাম হবো।

হরিণাকুন্ডু থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আসাদুজ্জামান জানান, চুরির অপবাদ দিয়ে এভাবে নির্যাতন করা অন্যায় ও অমানবিক। তিনি বলেন পুলিশ সুপারের নির্দেশে এ ঘটনায় শুক্রবার রাতে ৪ জনের নামে মামলা হয়েছে, যার নং ০৩। প্রধান অভিযুক্ত তুহিনসহ দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকিদের গ্রেফতারে অভিযান চালানো হচ্ছে।

আরও পড়ুন:  এখন বিএনপির সমালোচনা করেন কোন মুখে?

নির্বাচনে সহিংস ঘটনাগুলোর পূর্ণ ও স্বচ্ছ তদন্ত চেয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন

দাবি এক হলে বিএনপি-ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে বসতেই পারি: চরমোনাই পীর

ইসলামি দলগুলোর ঐক্যবদ্ধ মঞ্চ তৈরির আহবান জানালেন মাওলানা মামুনুল হক

নির্বাচনে অনিয়ম তদন্তে নিরপেক্ষ, পক্ষপাতহীন কমিশন গঠনের আহ্বান হিউম্যান রাইটস ওয়াচের

নৌকায় ভোট না দেয়ায় খুন-ধর্ষণ হতে হচ্ছে; ন্যূনতম লজ্জা থাকলে এভাবে সরকার গঠন করা যায় না: বামজোট

ফেসবুকে লাইক দিন