জুমার আগে মসজিদে বয়ান করলেন মেনন!

ইমান২৪.কমঃ তুমুল বিতর্কের মধ্যেই শুক্রবার মসজিদে আলোচনায় অংশ নিলেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন। শুক্রবার মালিবাগ মোড়ের বাইতুল আমান মসজিদে জুম্মার নামাজের আগে বক্তব্য দেন তিনি।

তিনি বলেন, দেশে একটি বিশেষ মহল ধর্ম নিয়ে বড় বড় কথা বললেও তারা ধর্মের অনুসরণ করে না। এমনকি নারীদের সম্মান করে না। ফলে সমাজের মধ্যে সৃষ্টি হয় বিভাজন। এর বিপরীতে আমাদের সবাইকে দেশকে এগিয়ে নিতে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে।

তিনি আরো বলেন, ধর্ম শান্তির জন্য, সেই শান্তির ধর্মকে বাংলাদেশ অনুসরণ করে উগ্রতাকে নয়। আমাদের প্রিয় নবী হজরত মোহাম্মদ সা. তাঁর বিদায় হজের ভাষণে ধর্ম নিয়ে বাড়াবাড়ি করতে নিষেধ করেছেন। তিনি সেই ভাষণে নারীর প্রতি বৈষম্য না করতে, তাদের সম্মান এবং সুরক্ষার জন্য নির্দেশ দিয়ে গেছেন।

আরো পড়ুন>> মালয়েশিয়ায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ইসলাম ধর্ম ও মহানবী (সা.) কে নিয়ে কটূক্তি করায় এক ব্যক্তিকে ১০ বছরের কারাদণ্ড এবং অপর তিনজনকে অভিযুক্ত করা হয়েছে। চারজনের বিরুদ্ধেই জাতিগত শান্তি নষ্ট, উস্কানি এবং সামাজিক যোগাযোগ বা যোগাযোগ মাধ্যমকে অপব্যবহারের আইনে অভিযোগ আনা হয়েছে।

শনিবার( ৯ মার্চ) রাতে এক বিবৃতিতে দেশটির পুলিশ এ তথ্য জানিয়েছে। বার্তা সংস্থা রয়টার্স এক প্রতিবেদন থেকে খবর জানা যায়। ধারণা করা হচ্ছে মুসলিম অধ্যুষিত দেশটিতে ইসলামকে কটাক্ষ করার দায়ে এটি এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ শাস্তি। প্রতিবেদনটিতে বলা হয়, বিবৃতিতে আইজিপি মোহাম্মদ ফুজি হারুন বলেছেন, অভিযুক্ত ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকে অপব্যবহারের ১০টি অভিযোগ রয়েছে।

তবে ওই ব্যক্তির পরিচয় প্রকাশ করা হয়নি। বার্তা সংস্থাটি জানায়, অপর একজনের বিরুদ্ধে একই অপরাধে অভিযোগ গঠন করা হয়েছে। সোমবার (১১ মার্চ) তার সাজার বিষয়ে শুনানি অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। আর বাকি দুইজনের বিরুদ্ধে এখনও অভিযোগ গঠন করা হয়নি।

তবে তাদের জামিন না দিয়ে আটক রাখা হয়েছে। মালয়েশিয়ার ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা মুজাহিদ ইউসুফ রাওয়া বলেন, ইসলাম ধর্ম ও মহানবীকে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কেউ কটূক্তি করছে কিনা তা তদারকি করতে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে একটি দল গঠন করা হয়েছে। তিনি বলেন, ধর্মকে অবমাননা করে এমন কোন কার্যকলাপ কোন ভাবেই মেনে নেয়া হবে না।

ফেসবুকে লাইক দিন