চুক্তি না করলে ঘানি সরকার কি তালেবানের বিজয় ঠেকাতে পারবে?

ইমান২৪.কম: আফগানিস্তানের দুই দশকব্যাপী যুদ্ধ বন্ধে প্রায় এক সপ্তাহ আলোচনা করার পরও তালিবান ও মার্কিন মদদপুষ্ট আফগান সরকার পক্ষ একেবারে মৌলিক কিছু ইস্যুতে একমত হতে পারেনি।

এই গভীর মতভেদ শুধু যুদ্ধবিরতি প্রশ্নে নয়, আরো অনেক মৌলিক ইস্যুতে। ফলে যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশটিতে ক্ষত নিরাময়ের আশা এখনো সুদূর পরাহত। তবে মতবিভেদ থাকার পরও আলোচনা অব্যাহত থাকাই একটি বড় সাফল্য।

গত ফেব্রুয়ারিতে তালেবানের সাথে আমেরিকার শান্তিচুক্তির জের ধরে এই আলোচনা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। চুক্তি অনুযায়ী আমেরিকার তার সেনা প্রত্যাহার করে নেবে। কাতারের রাজধানী দোহায় ১২ সেপ্টেম্বর যে উদ্দীপনা নিয়ে আলেচনা শুরু হয় তা ক্রমেই ফ্যাকাশে হয়ে আসছে।

তাতে আমেরিকার পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও উপস্থিত ছিলেন। কিন্তু দুই পক্ষই নিশ্চিত করেছে যে তারা নাটকীয়ভাবে বলতে গেলে সব ইস্যুতেই দ্বিমত পোষণ করেন।

মার্কিন মদদপুষ্ট আফগান সরকারের এক সিনিয়র আলোচক বলেন, আমরা এমন এক পক্ষের সঙ্গে আলোচনা করছি যারা কঠিন ও অনমনীয়। ফলে কোন কিছুই সামনে এগুচ্ছে না।

আফগানিস্তানভিত্তিক স্বাধীন বিশ্লেষক গ্রাহাম স্মিথ বলেন, প্রথম সপ্তাহেই বুঝা গেছে আলোচনা সাধারণভাবে কতটা জটিল হতে পারে।

এর মধ্যে সবচেয়ে জটিল ইস্যু হবে আফগানিস্তানের ভবিষ্যৎ রাজনৈতিক ব্যবস্থা। আগামী বছরের মে মাসের মধ্যে সব বিদেশী সেনার আফগানিস্তান ত্যাগ করার কথা।

ফলে এই অনমনীয় তালেবানের সঙ্গে কীভাবে তারা ক্ষমতা ভাগাভাগি করবে সেই প্রশ্নে মার্কিন-সমর্থিত কাবুল সরকারের উপর চাপ ক্রমেই বাড়ছে। এটা না করতে পারলে তারা কি তালিবানের সামরিক বিজয় ঠেকাতে পারবে?

ফেসবুকে লাইক দিন