আল-আকসার অবমাননা কিছুতেই সহ্য করা হবে না: ইসলামি জিহাদ

ইমান২৪.কম: ইহুদিবাদী সন্ত্রাসীদের অবৈধ রাষ্ট্র ইসরাইল নৃশংস হত্যাযজ্ঞ চালিয়ে শতাধীক ফিলিস্তিনিদেন শহীদ করেছে। গাজা উপত্যকায় ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে দখলদার ইসরাইলির হামলায়।

১১ দিন যুদ্ধের পর বিরতিতে সম্মত হয় ইহুদিবাদী ইসরাইল ও ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাস। যুদ্ধবিরতির পরেও আবারো মুসলমানদের প্রথম কিবলা আল-আকসায় মুসল্লিদের প্রবেশে বাঁধা দিয়েছে দখলদার ইসরাইল।

এমন পরিস্থিতিতে ফিলিস্তিনের ইসলামি জিহাদ কড়া হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছে, ফিলিস্তিনি জনগণের ন্যায়সঙ্গত অধিকার ধ্বংস করার যেকোনো মার্কিন ও ইসরাইলি ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে শক্তি প্রতিরোধ গড়ে তোলা হবে।

মঙ্গলবার (২৬ মে) গাজায় ইসলামি জিহাদের মুখপাত্র তারিক সালামি এই হুঁশিয়ারি দিয়েছেন।

তারিক সালামি বলেন, দখলদার ইসরাইল যদি বায়তুল মুকাদ্দাস ও আল-আকসা মসজিদের বিরুদ্ধে আবার আগ্রাসন চালায় তাহলে গাজার প্রতিরোধ যোদ্ধারা আবার তার জবাব দেবে।

তিনি বলেন, প্রতিরোধ যোদ্ধারা কুদস ও মসজিদুল আকসা রক্ষায় এগিয়ে এসে প্রমাণ করেছে, আল-আকসা মসজিদ তাদের রেডলাইন এবং এই মসজিদের অবমাননা কিছুতেই সহ্য করা হবে না।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেনের চলমান ইসরাইল সফরের প্রতি ইঙ্গিত করে ইসলামি জিহাদের মুখপাত্র বলেন, ফিলিস্তিনি জনগণের বিরুদ্ধে নয়া ষড়যন্ত্র আঁটতে এই সফর অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

তিনি বলেন, গাজার প্রতিরোধ আন্দোলনগুলো এমন কাজ করেছে যে, মার্কিন মন্ত্রী তেল আবিবে ছুটে আসতে বাধ্য হয়েছে। ইহুদিবাদী শত্রু এখন তার সমস্যা আমেরিকায় রপ্তানি করার চেষ্টায় রত হয়েছে।

ফেসবুকে লাইক দিন