গ্রেফতারের একমাসের ভিতরেই ৫ মামলার জামিল পেল হেফাজত নেতা

ইমান২৪.কম: স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর দিনে চট্টগ্রামের হাটহাজারীর ঘটনায় গ্রেফতার এক হেফাজত নেতার পাঁচ মামলায় জামিন পেয়ে কারাগার থেকে মুক্ত হওয়া নিয়ে তোলপাড় তৈরি হয়েছে। ওই হেফাজত নেতা আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত মর্মে প্রত্যয়নপত্র দিয়েছিলেন দলটির উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক।

সেই প্রত্যয়নপত্র জামিন আবেদনের সঙ্গে আদালতে দাখিল করা হয়। এর ফলে ‘রাষ্ট্রপক্ষের জোরালো বিরোধিতা না থাকায়’ সহজেই জামিন পেয়ে যান ওই ব্যক্তি। জামিননামা কারাগারে পৌঁছানোর পর নিয়মমাফিক মুক্তিও পেয়ে যান।

কিন্তু গ্রেফতারের মাত্র একমাসের মধ্যে থানায় আক্রমণসহ সহিংসতার মামলার আসামি হেফাজত নেতার জামিন ও মুক্তি নিয়ে বিস্মিত হন চট্টগ্রাম জেলা পুলিশের শীর্ষ কর্মকর্তারা।

পুলিশ জেলগেট থেকে আবারও ওই হেফাজত নেতাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিজেদের হেফাজতে নিয়ে যাওয়া হয়। তৎপর হন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীও। তিনি পাঁচ মামলায় জামিন বাতিলের আবেদন করেন। আদালত ভার্চুয়াল শুনানি সম্পন্ন করে তার জামিন বাতিল করে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন।

শুক্রবার (১৪ মে) ঈদের দিনেও চট্টগ্রাম জেলা ও দায়রা জজ মো. ইসমাইল আদালতে উপস্থিত হয়ে পরোয়ানায় সই করেন। বেঞ্চ সহকারীর মাধ্যমে গ্রেফতারি পরোয়ানা পাঠানো হয় হাটহাজারী থানায়।

পুলিশ জানিয়েছে, উজায়ের আহমেদ হামিদী নামে ওই ব্যক্তি হেফাজতে ইসলামের হাটহাজারী উপজেলা শাখার দাওয়াহ বিষয়ক সম্পাদক। তিনি হাটহাজারী পৌরসভার ৪ নম্বর আলীপুর ওয়ার্ডের বড় মৌলভী বাড়ির প্রয়াত জুনায়েদ আহমদের ছেলে।

পুলিশ বলছে, উজায়েরের হেফাজত ছাড়া অন্য কোনো রাজনীতিতে সম্পৃক্ত থাকার তথ্য তাদের কাছে নেই। তবে স্থানীয় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক চাইলে সোহরাব হোসেন চৌধুরী নোমান বলছেন, উজায়ের যুবলীগ-আওয়ামী লীগের রাজনীতিই করেন। হেফাজতের রাজনীতিতে তিনি যুক্ত কি না, তা জানেন না।

ফেসবুকে লাইক দিন