খুলনায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় দুই চিকিৎসকসহ নিহত ৪

ইমান২৪.কম: খুলনায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় দুই চিকিৎসকসহ চারজন নিহত হয়েছেন। সোমবার ফুলতলা উপজেলার খুলনা-যশোর মহাসড়ক ও ডুমুরিয়া উপজেলার চুকনগর- যশোর সড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন-খুলনা মহানগরীর সোনাডাঙ্গা করিম নগরের মৃত মাজেদ আলীর ছেলে ডা. শাহাদাৎ হোসেন (৬২), সাউথ সেন্ট্রাল রোডের মৃত আব্দুল ওয়াহেদের ছেলে ডা. মোয়াজ্জেম (৬০), নগরীর উত্তর মুজগন্নী এলাকার মাহাবুবুর রহমানের ছেলে চালক জাহাঙ্গীরসহ (৩৭) ও যশোরের কেশবপুর উপজেলার ভরত ভায়না ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কেন্দ্রের সহকারী জাহিদুল ইসলাম (৪০)।

ফুলতলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম জানান, সোমবার বিকাল পৌঁনে ৪টার দিকে খুলনা-যশোর মহাসড়কের ফুলতলা উপজেলার বেজেরডাঙ্গা এলাকার রাড়িপাড়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সন্নিকটে যশোরগামী প্রাইভেট কার (ঢাকা মেট্রো গ- ১৩-৬৮৭০) ও খুলনাগামী গড়াই পরিবহনের রাসেল নামের একটি বাসের (রাজ মেট্রো-ব-১১-০০৩৮) সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ ঘটে।

এতে প্রাইভেটকারের যাত্রী ডা. শাহাদাৎ হোসেন ও ডা. মোয়াজ্জেম এবং প্রাইভেটকারের চালক জাহাঙ্গীর ঘটনাস্থলেই নিহত হন। খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা প্রাইভেটকারের সামনের অংশ কেটে নিহতদের লাশ উদ্ধার করে। পুলিশ গড়াই পরিবহনের ঘাতক বাসটি আটক করেছে।

তবে চালক ও হেলপার পালিয়ে গেছে।অপরদিকে, সোমবার বেলা ১২টার দিকে ডুমুরিয়া উপজেলার চুকনগর-যশোর সড়কের নরনিয়া নামক স্থানে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় জাহিদুল ইসলাম নামের এক মোটরসাইকেল আরোহী নিহত হন। নিহত জাহিদুল ইসলাম যশোরের কেশবপুর উপজেলার ভরত ভায়না ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কেন্দ্রের সহকারী ছিলেন।

স্থানীয়রা জানান, জাহিদুল ইসলাম মোটরসাইকেলে যশোরের কেশবপুর থেকে চুকনগরের দিকে আসছিলেন। নরনিয়া নূরানিয়া মহিলা দাখিল মাদ্রাসার সামনে এলে একটি ট্যাংকলরির সঙ্গে মোটরসাইকেলের ধাক্কা লাগে।

এ সময় মোটরসাইকেল থেকে ছিটকে পড়ে জাহিদুল ঘটনাস্থলেই নিহত হন। নিহত জাহিদুল ইসলামের বাড়ি কেশবপুর উপজেলার সুফলাকাঠি ইউনিয়নে। পুলিশ সুপার মো. আনিসুর রহমান (জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের দায়িত্বে) বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

আরও পড়ুন: কাদিয়ানীদের রাষ্ট্রীয়ভাবে অমুসলিম ঘোষণার দাবিতে 

বাংলাদেশের বিমান ছিনতাইয়ের চেষ্টা : বিমানের ডানা বেয়ে নেমে

ফেসবুকে লাইক দিন