‘মা’ আ:লীগ করায় নিজ মায়ের বদলে খালেদা জিয়াকে ‘মা’ ডাকার ঘোষণা ছাত্রদল নেতার!

ইমান২৪.কম: মা করেন আওয়ামী লীগের রাজনীতি, ছেলে যুক্ত হয়েছেন ছাত্রদলে। এ নিয়ে নানা কানাঘুষা চলছিল। সেটি আরও ডালপালা মেলে যখন রিফাত বিন জিয়া নামের সেই ছাত্রদল কর্মীর বিরুদ্ধে একাধিক বিয়ের অভিযোগ উঠে সংগঠনটির মধ্য থেকেই। এবার নিজের মায়ের বদলে খালেদা জিয়াকে মা বলে ঘোষণা দিয়ে নতুন আলোচনার জন্ম দিলেন এই ছাত্রদল নেতা।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলা ছাত্রদলের নবগঠিত আহবায়ক কমিটির আহবায়ক এম রিফাত বিন জিয়া নামের এই যুবক। তার মা উপজেলা আওয়ামী লীগের নেত্রী বেবী ইয়াছমিন। রিফাতের মা আ’লীগের রাজনীতি সাথে সরাসরি জড়িত হওয়ায় সরাইল উপজেলা নবগঠিত ছাত্রদলের আহবায়ক কমিটি গঠন হওয়ার পরপরই তোপের মুখে পড়ে তিনি।

এ বিষয়ে রিফাত জানান, আমার মা আ’লীগের রাজনীতিতে জড়িত হওয়ার কারণে আমি ‘মা’ ডাকা থেকে বঞ্চিত হয়ে আসছি। বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া এখন আমার মা। জিয়া পরিবার আমার পরিবার।

তিনি জানান ১৯৭৯ সাল থেকে আমার বাবা বিএনপির রাজনীতির সাথে জড়িত। বিএনপি রাজনীতিতে জড়িত থাকার কারণে এরশাদ বিরোধী আন্দোলনের সময় একাধিকবার কারাবরণ করেছিলেন।

নানা অভিযোগের বিষয়ে রিফাত জানান, তিনি একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যায়ন করছেন। দলীয় গঠনতন্ত্র অনুযায়ী সকল প্রকার যোগ্যতা থাকা সাপেক্ষে দল তার রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড মূল্যায়ন করে দলীয় দায়িত্ব প্রদান করেছে। তিনি ষড়যন্ত্রকারীদের মিথ্যা তথ্যে থেকে বিরত থাকতে সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ জানান।

এছাড়া সরাইল উপজেলা ছাত্রদলের আহবায়ক প্রার্থী হওয়ার পর থেকে তার বিরুদ্ধে বিবাহিত সহ অসংখ্য মনগড়া অভিযোগ করে আসছিল একটি কুচক্রী মহল যা এখনও অব্যাহত আছে। তিনি বলেন, আমাকে বিবাহিত বলে উল্লেখ করা হয়েছে যা সম্পূর্ণরুপে মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। সঠিক তথ্য প্রমাণ ছাড়া এই সমস্ত অভিযোগ করা জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের ভাবমূর্তিকে বিনষ্ট করার গভীর ষড়যন্ত্রের অংশবিশেষ।

উল্লেখ্য, গত ২৪ ফেব্রুয়ারি কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের নির্দেশে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলা ছাত্রদলের ২১ সদস্য’র আহবায়ক কমিটি অনুমোদন করে জেলা ছাত্রদল।

ফেসবুকে লাইক দিন