কেজির দরে প্রাথমিকের বই বিক্রি করছেন প্রধান শিক্ষক!

ইমান২৪.কম: টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে ৮ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে সরকারি প্রাথমিকের বই। আর এই কাজ করছেন খোদ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক। হাতেনাতে এ ঘটনা ধরা পড়েছে উপজেলার বহুরিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। বস্তাবন্দি করার সময় পাওয়া গেছে প্রায় কয়েক বস্তা বই।

এদিকে হাতে নাতে ধরা পড়লেও বিষয়টি অস্বীকার করেছেন প্রধান শিক্ষক কাজী গোলাম সারোয়ার। তিনি জানান, বইগুলো গুছিয়ে রাখা হচ্ছে গুদাম ঘরে রাখার জন্যে।

তবে নাম প্রকাশ না করার শর্তে ওই পুরাতন বই ক্রেতাদের একজন জানান, ৮ টাকা দরে বইগুলো কিনেছেন তিনি। সে হিসেবে প্রধান শিক্ষক তার কাছ থেকে বুঝে নিয়েছেন ২৭৫০ টাকা। যেখানে পুরাতন বইসহ এ বছরের নতুন বইও রয়েছে। যদিও নতুন কিংবা পুরাতন সব বই-ই যথাসময়ে শিক্ষা অফিস বরাবর ফেরত দেয়ার কথা।

বই ক্রেতা আরও জানান, উপজেলার অধিকাংশ বিদ্যালয়েই এভাবে বই বিক্রি করে থাকে। ৫ থেকে ৮ টাকা দরে এই বইগুলো কিনে থাকেন তারা। তবে এগুলো বিক্রয় করা যে অবৈধ তা জানেন না পুরাতন বই ক্রেতা স্বল্পশিক্ষিত ওই ব্যক্তি।

এ ব্যাপারে মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আলমগীর হোসেন জানান, বিষয়টি তার জানা নেই। তবে বিষয়টি তিনি খোঁজ নিয়ে দেখবেন বলে জানান। উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবদুল মালেক জানান, সরকারি নতুন কিংবা পুরাতন বই কোনটাই বিক্রি করে দেয়ার কোন সুযোগ নেই। যদি কেউ এ কাজ করে থাকে তবে তা তদন্ত করে দেখা হবে এবং দোষী প্রমাণিত হলে তার বিরুদ্ধে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবদুল মালেক জানান, সরকারি নতুন কিংবা পুরাতন বই কোনোটাই বিক্রি করে দেয়ার কোনো সুযোগ নেই। যদি কেউ এ কাজ করে থাকে তবে তা তদন্ত করে দেখা হবে এবং দোষী প্রমাণিত হলে তার বিরুদ্ধে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আরও পড়ুন:  ‘এটাই আমার শেষ মেয়াদ’ : প্রধানমন্ত্রী

কাবা শরীফের ছাদে হাঁটলেন বিতর্কিত যুবরাজ সালমান (ভিডিও)

মোদীর বার্তায় যুদ্ধের শঙ্কা, পাকিস্তান চালাবে পারমাণবিক হামলা

ভারতের পাশে যুক্তরাষ্ট্র-ইসরায়েল, পাকিস্তানের পক্ষে চীন

আমার মনে হয়েছে আমি জাহান্নামে ছিলাম : চীনা বন্দিশিবির থেকে ফিরে এক নারী

সরকারের সমালোচনাকারীরা রাষ্ট্রদ্রোহী হতে পারে না: মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান

ফেসবুকে লাইক দিন