কিট দিয়ে ব্যবসা করতে চাই না, জনসেবা করব: ডা. জাফরুল্লাহ

ইমান২৪.কম: ডা. জাফরুল্লাহ বলেছেন, আমরা উদ্ভাবিত কিট দিয়ে ব্যবসা করতে চাই না, বরং দেশের মানুষের সেবা করতে চাই। তাই করোনা শনাক্তকরণে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র উদ্ভাবিত কিট দ্রুত অনুমোদন দেয়ারও দাবি জানান তিনি।

শুক্রবার গণমাধ্যমকে তিনি এ কথা বলেন। করোনা রোগীদের চিকিৎসায় প্লাজমা থেরাপি সহজলভ্য করতে গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতালে একটি প্লাজমা ব্যাংক প্রতিষ্ঠার কথাও জানান প্রবীণ এ চিকিৎসক।

ডা. জাফরুল্লাহ বলেন, এই কিট দিয়ে আমরা ব্যবসা-বাণিজ্য করতে চাই না, কিংবা অর্থও আয় করতে চাই না। বরং উদ্ভাবিত কিট দিয়ে আমরা দেশের মানুষের সেবা করতে চাই।

‘বেশি পরিমাণে কিট উৎপাদন এবং তা বিদেশে রপ্তানি করা সম্ভব হলে আমাদের কিটের মূল্য আরো অনেক কমে যাবে। আর তাই আমাদের চাওয়া হলো- দেশ ও জাতির স্বার্থে যতটা দ্রুত সম্ভব কিটের অনুমোদন দেয়া হোক।’

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা বলেন, আমাদের যে কিট আছে তা দিয়ে মাত্র ৩-৫ মিনিটের মধ্যে টেস্ট করানো সম্ভব। আমাদের কিটের সাফল্য যে শতভাগ সেটা আগেও বলেছি, এখনো বলছি। আমি নিজে টেস্ট করে পজিটিভ রেজাল্ট পেয়েছি।

পরে বিএসএমএমইউ হাসপাতালে টেস্ট করেও একই রেজাল্ট এসেছে। তিনি বলেন, এ নিয়ে বহু পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও তর্ক-বিতর্ক হয়েছে। বিএসএমএমইউতে কিটের কার্যকারিতার পরীক্ষা চলছে। তারা আরো সময় নিয়ে পরীক্ষা করুক, আমাদের কোনো আপত্তি নেই।

বিএসএমএমইউ কর্তৃপক্ষ যে পরামর্শ দেবে, আমরা তা পরিচালনের চেষ্টা করবো। ডা. জাফরুল্লাহ বলেন, বিএসএমএমইউ এখন পর্যন্ত কিটের যে পরীক্ষা সম্পন্ন করেছে, তার ভিত্তিতেই অনুমোদন দেয়া দাবি ও অনুরোধ করছি।

দেশ ও মানুষের স্বার্থে আমাদের কিট উৎপাদন ও ব্যবহারের অনুমতি দেয়া হোক। উল্লেখ্য, দেশে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার পর স্বল্প মূল্যে ও অল্প সময়ে কোভিড-১৯ শনাক্তকরণের কিট উদ্ভাবনের ঘোষণা দেয় গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র। কিন্তু নানা কারণে বার বার পিছিয়ে যায় কিটের অনুমোদন।

ফেসবুকে লাইক দিন